রাজশাহীর সাংবাদিক ফটিক আর নেই

ব্যুরো প্রধান, রাজশাহী
| আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৩১ | প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩:৫৪

রাজশাহীর স্থানীয় দৈনিক সোনালী সংবাদের বার্তা সম্পাদক আনোয়ারুল আলম ফটিক (৬০) আর নেই।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে নয়টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর বালিয়াপুকুর মহল্লায় নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি.....রাজিউন)।

ফটিক গত ২৭ নভেম্বর তিনি ব্রেইন স্ট্রোক করেছিলেন। সেদিনই দুপুরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার বাম হাত ও পা প্রায় অকেজো হয়ে পড়েছিল। চিকিৎসকরা তাকে বাসায় নিয়ে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা দেয়ার পরামর্শ দেন। তাই গত ৭ ডিসেম্বর তাকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার থেরাপি চলছিল। এরই মধ্যে সবাইকে ছেড়ে চলে গেলেন রাজশাহীর এই বিশিষ্ট সাংবাদিক। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী এবং এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

আনোয়ারুল আলম ফটিক ১৯৯৬ সালে ক্রীড়া প্রতিবেদক হিসেবে দৈনিক সোনালী সংবাদে যোগ দেন। পরে তিনি স্টাফ রিপোর্টার হন। পরে নিজ কাজের দক্ষতায় হন প্রধান প্রতিবেদক। সর্বশেষ বার্তা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। সব সময় কাজ করেছেন অত্যন্ত সততা আর নিষ্ঠার সাথে। রাজশাহীর মানুষ তাকে একজন নির্লোভ ব্যক্তি হিসেবেই চেনেন।

কর্মময় জীবনে সিনিয়র সাংবাদিক ফটিক রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে সোনালী সংবাদের পাশাপাশি বাংলাদেশ বেতারের রাজশাহী কেন্দ্রের একজন অনুবাদক এবং দৈনিক ভোরের পাতা পত্রিকার রাজশাহী ব্যুরো প্রধান হিসেবে কাজ করছিলেন।

শুক্রবার বাদ জুম্মা বালিয়াপুকুর জামে মসজিদে সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিকের জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। পরে নগরীর রেলগেটে গোরহাঙ্গা কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

আনোয়ারুল আলম ফটিকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

ফটিকের মৃত্যুতে দৈনিক সোনালী সংবাদ পরিবার গভীরভাবে শোকাহত। দেশের বাইরে অবস্থানরত রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ও সোনালী সংবাদের নির্বাহী পরিচালক ফজলে হোসেন বাদশা ফটিকের মৃত্যুর খবর শুনে গভীর শোক প্রকাশ ও তার আত্মার শান্তি কামনা করেছেন। পাশাপাশি সমবেদনা জানিয়েছেন শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি।

রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সোনালী সংবাদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকারও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক ফটিকের মৃত্যুতে। এছাড়া সোনালী সংবাদের সব সাংবাদিক এবং সকল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পত্রিকাটির সম্পাদক ও রাজশাহী সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান মো. লিয়াকত আলী। ফটিকের মৃত্যুতে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নও গভীর শোক জানিয়েছে।

অপর এক বিবৃতিতে শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নে সহ-সভাপতি মামুন-অর-রশিদ, সদস্য জাবীদ অপু ও আনু মোস্তফা। রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আসলাম-উদ-দৌলাও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

এছাড়া শোক জানিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক মোমিনুল ইসলাম বাবু ও যুগ্ম আহ্বায়ক কবীর তুহিন। শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট

অ্যাসোসিয়েশন রাজশাহী শাখার সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক সামাদ খান, উপদেষ্টা ফরিদ উদ্দিন পরাগ, সহসভাপতি শহিদুল ইসলাম দুখু, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সোহাগ আলী, কোষাধ্যক্ষ শামস রুমি, প্রচার সম্পাদক শরিফুল ইসলাম তোতা প্রমুখ।

রাজশাহী কলেজ রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতৃবৃন্দও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ফটিকের মৃত্যুতে।

ঢাকাটাইমস/১২ডিসেম্বর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :