পাকিস্তান আমলেও ডাকসুর ভিপির ওপর এমন হামলা দেখিনি: মান্না

নজরুল ইসলাম
| আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:৪০ | প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৩:৫৪

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হকের ওপর বারবার হামলার ঘটনায় বিষয়টিকে পাকিস্তান আমলের সঙ্গে তুলনা টেনে ডাকসুর সাবেক ছাত্রনেতা মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, পাকিস্তান আমলে কোনো কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ওপর এমন হামলা দেখেননি তিনি।

ডাকসুর ভিপি নুরুল হকের ওপর বারবার হামলার প্রেক্ষিতে ঢাকা টাইমসের সঙ্গে একান্ত আলাপে এমন মন্তব্য করেন সাবেক এই ছাত্রনেতা।

ডাকসুর ভিপি নুরুল হক এ নিয়ে নয়বার হামলার শিকার হয়েছেন। সর্বশেষ গতকাল নুরুল হকের ওপর হামলা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের নেতাকর্মীরা। তাও আবার সেটা হয়েছে ডাকসুর ভিপির নিজ কক্ষেই।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘এই রকম বর্বরতা কিন্তু আমি আমার ছাত্ররাজনীতে দেখেনি। বাংলাদেশ আমলে কবে দেখলাম তাই ভাবছি, পাকিস্তান আমলেও দেখিনি। এইরকমভাবে বেধড়ক পেটানো মৃত্যু সমতুল্য। এটা নিয়ে নিন্দা জানানোর ভাষা আমার নেই।’

সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন, ‘ডাকসু ভিপি মানে তো সরকারের প্রতিপক্ষ হয়ে গেছে এমন তো না। আগে তো ছাত্রলীগ পেটাত, এখন নতুন সাইনবোর্ড মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চে সেটা করা হলো। এটা খুব দুঃখজনক।’

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন প্রশ্ন রেখে মান্না বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের বিশ্ববিদ্যালয়ে কি কাজ? তাদের ডাকসুর ভিপির বিরুদ্ধে যেতে হবে কেন? এইগুলোতো আমি বুঝতে পারছি না।’

এই ধরনের ঘটনা যেন আর না ঘটতে পারে সেজন্য ছাত্র জনতাকে এটা প্রতিরোধ করা দরকার বলে মনে করেন সাবেক এই ছাত্রনেতা।

এই ঘটনায় সরকারের সমালোচনা করেন এই নেতা। বলেন, ‘ন্যূনতম বিরোধিতা বা সমালোচনা সহ্য করতে চায় না সরকার। যার জন্য বিভিন্ন ব্যানারে যারাই প্রতিবাদী কণ্ঠ তাদের স্তব্ধ করে দেয়ার জন্য এগুলো করা হচ্ছে।’

স্পষ্টভাষী বলেই নুরের ওপর হামলা হচ্ছে: আমান

সাবেক ছাত্রনেতা ও ডাকসুর জিএস আমান উল্লাহ আমান ভিপি নুরুল হকের ওপর হামলার ঘটনাকে তার স্পষ্টভাষিতা বা সত্য বলার সাহসিকতার জন্য হচ্ছে মন্তব্য করে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

আমান ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘যে গণতন্ত্রের জন্য আমরা লড়াই করেছি, সংগ্রাম করেছি সেই গণতন্ত্র এখন অবরুদ্ধ বা বন্দি। যারাই এই বন্দি গণতন্ত্রকে মুক্ত করার জন্য কথা বলছে বা আন্দোলন করছে তাদের ওপরই আঘাত আসছে।’

এই ঘটনায় সরকারের সমালোচনা করে ছাত্রনেতা আমান উল্লাহ আমান বলেন, ‘সরকার যদি এই ধরনের ঘটনা না করিয়ে থাকে তাহলে তো সরকার তাদের গ্রেপ্তার করত বা মামলা দিত। কিন্তু সরকার তো তাদের গ্রেপ্তার বা মামলা দিচ্ছে না। আমি এটার নিন্দা জানাই।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত