বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটনের ধ্রুপদী প্যাভিলিয়ন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০২ জানুয়ারি ২০২০, ১৬:২৩ | প্রকাশিত : ০১ জানুয়ারি ২০২০, ২১:৪৫

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় প্যাভিলিয়ন নির্মাণে চমক দেখিয়েছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। প্রথমবারের মতো একই ব্র্যান্ডের দুটি প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন মুখোমুখি তৈরি করেছে ধ্রুপদী ইমেজ। মেলার সবচেয়ে বেশি উচ্চতার নান্দনিক ডিজাইনের দৃষ্টিনন্দন ওই প্যাভিলিয়ন দুটিতে সহস্রাধিক মডেলের ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ খ্যাত পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করছে ওয়ালটন।

জানা গেছে, ৩-তলা বিশিষ্ট ওয়ালটনের প্যাভিলিয়ন দুটির প্রতিটির আয়তন ৭ হাজার ৫০০ বর্গফুট করে। মেলার প্রধান ফটক থেকেই দর্শনার্থীদের চোখে পড়বে ২৬ এবং ২৯ নম্বর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন দুটি। ১০০ ফুট চওড়া রাস্তার দুই পাশে মুখোমুখি প্যাভিলিয়ন দুটি দাঁড়িয়ে। দুটি প্যাভিলিয়ন পাশাপাশি তৈরি করেছে সৌন্দর্য্যরে দ্যোতনা। এর ডিজাইন ও নির্মাণে রয়েছে নতুনত্ব। যা সহজেই ক্রেতা-দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ওয়ালটনের উভয় প্যাভিলিয়নের ডিজাইনে দেশীয় শিল্প ও ঐতিহ্য’র সঙ্গে সবুজকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। প্রবেশদ্বারে করা হয়েছে নান্দনিক টেরা-কোটা। মেলায় আগত বিপুল দর্শনার্থীদের চাপ বিবেচনায় এক্ষেত্রে মাটির বদলে ব্যবহার করা হয়েছে কাঠ। উভয় প্যাভিলিয়নের বিভিন্ন ফ্লোরে যাতায়াতের জন্য থাকছে সুপরিসর লিফট। ওয়ালটনের তৈরি এই লিফট মেলায় প্রদর্শন এবং বিক্রি করা হবে। পাশাপাশি ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য উভয় প্যাভিলিয়নে রয়েছে ৬ ফুট করে চওড়া সিঁড়ি।

উভয় প্যাভিলিয়নের বাইরে মুখোমুখি স্থাপন করা হয়েছে ১৬ বাই ১২ ফুটের দুটি বিশালাকার এলইডি টিভি। যেখানে ওয়ালটন পণ্যের অত্যাধুনিক উৎপাদন প্রক্রিয়া এবং কর্পোরেট ডক্যুমেন্টারি প্রদর্শিত হবে। এতে করে, মেলায় আগত ক্রেতা-দর্শনার্থীরা ওয়ালটন পণ্যের উৎপাদন ও ব্যবহার সম্পর্কে বাস্তুব জ্ঞান পাবেন।

মেলায় আসা ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য ওয়ালটনের প্যাভিলিয়নে রয়েছে চমৎকার দুটি সেলফি জোন। প্রয়োজনীয় তথ্য ও সেবা দিতে থাকছে হেল্প ডেক্স। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ খ্যাত ওয়ালটন পণ্য রপ্তানি সংক্রান্ত তথ্য প্রদান এবং বিদেশি ক্রেতা-দর্শনার্থীদের তথ্য ও সেবা দিতে রয়েছে আন্তর্জাতিক ব্যবসা ইউনিট (আইবিইউ) কর্নার। করপোরেট ক্লায়েন্টদের জন্য আছে করপোরেট কর্নার। অনলাইন ক্রেতাদের সেবা দেবে ই-প্লাজা ডেক্স।

প্রকৌশলী শাদী মোহাম্মদ রুম্মান জানান, ওয়ালটনের সুবিশাল প্যাভিলয়ন দুটি নির্মাণ কাজে অনুসরণ করা হয়েছে গ্রিন টেকনোলজি মেথড। এর একপাশের দেয়াল সম্পূর্ণরূপে কৃত্রিম ঘাস দিয়ে সাজানো হয়েছে। রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত আলো-বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা। কাঠামো নির্মাণ, অভ্যন্তরীণ সাজসজ্জ্বায়, বৈদ্যুতিক সংযোগ স্থাপনে ব্যবহার করা হয়েছে ফায়ার রেসিস্ট্যান্ট ক্যাবলস, স্টিলের কাঠামো, এসিপি (এ্যালুমিনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল) বোর্ড, গ্লাস ইত্যাদি। মেলা শেষে এসব ম্যাটেরিয়ালস দীর্ঘস্থায়ী কাঠামো নির্মাণেও কাজে লাগবে। স্টিল ও এসিপি বোর্ডগুলোর ৯০ শতাংশই পরবর্তীতে ব্যবহারযোগ্য। প্যাভিলিয়নে বাইরে থাকছে সবুজের সমারোহ।

২৬ নম্বর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নের নিচতলায় প্রদর্শন করা হচ্ছে ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর ও কম্প্রেসর। একপাশে রয়েছে গোছানো স্মার্ট রান্নাঘর। যা সাজানো হয়েছে ওয়ালটনের বিভিন্ন গৃহস্থালী পণ্য দিয়ে। দ্বিতীয় তলায় থাকছে এয়ারকন্ডিশনার, লিফট এবং হোম অ্যাপ্লায়েন্স।

আর ২৯ নং প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নের নিচতলা সাজানো হয়েছে টেলিভিশন এবং ইলেকট্রিক অ্যাপ্লায়েন্স দিয়ে। দ্বিতীয় তলায় থাকছে মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ-কম্পিউটার ইত্যাদি প্রযুক্তিপণ্যের সমাহার। উভয় প্যাভিলিয়নের তৃতীয় তলায় থাকছে সুবিশাল স্টোর।

বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়ন পরিচালনার দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক মো. হুমায়ূন কবীর বলেন, ওয়ালটন বাংলাদেশের শীর্ষ ব্র্যান্ড। যে কারণে ওয়ালটনের প্রতি সবার বাড়তি আকর্ষণ থাকে। এবার শীর্ষ গ্লোবাল ব্র্যান্ড হওয়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। বাণিজ্যমেলায় প্যাভিলিয়নের ডিজাইন এবং অত্যাধুনিক পণ্যের সমাহার দেখে দর্শনার্থীরা বিষয়টি সহজেই অনুধাবন করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, সেরা ভ্যাটদাতার পুরস্কার চালু হওয়ার পর থেকে প্রতিবছর মেলায় সেরা ভ্যাটদাতার সম্মান পাচ্ছে ওয়ালটন। এছাড়া প্রায় প্রতিবছরই সেরা প্যাভিলিয়নের পুরস্কার পেয়ে আসছে ওয়ালটন। বাংলাদেশের এক নম্বর ব্র্যান্ড হিসেবে ওয়ালটনের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি পণ্যের প্রতি ক্রেতা-দর্শনার্থীদের বাড়তি আকর্ষণ থাকে। সে কারণে দেশি-বিদেশি বিপুলসংখ্যক প্রযুক্তিপ্রেমী ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে ভিড় করেন। তারা যাতে স্বাচ্ছ্যন্দে ওয়ালটন পণ্য দেখতে এবং প্রয়োজনীয় সেবা পেতে পারেন, সেজন্য এবছর দুটি প্যাভিলিয়ন থাকছে ওয়ালটনের।

(ঢাকাটাইমস/১জানুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :