ঢাকাইয়া আজিজ হত্যা মামলার রায় ১ এপ্রিল

আদালত প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:০৬

ঢাকাইয়া আব্দুল আজিজ চাকলাদার হত্যা মামলায় রায় পিছিয়ে আগামী ১ এপ্রিল ধার্য করেছে আদালত।

বুধবার মামলাটি রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য থাকলেও রায় প্রস্তুত না হওয়ায় ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমান নতুন এ তারিখ ঘোষণা করেন।

গত ১৪ জানুয়ারি মামলাটির যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৯ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছিলেন আদালত।

মামলায় মোট আসামি সাতজন। যার মধ্যে প্রধান আসামি ছিলেন খুনের দায়ে ফাঁসির দড়িতে ঝোলা খুলনার তৎকালীন ওয়ার্ড কমিশনার এরশাদ শিকদার। খুলনার জলিল টাওয়ার মালিকের ম্যানেজার খালিদ হত্যা মামলায় ২০০৪ সালের ১০ এপ্রিল মধ্যরাতে খুলনা জেলা কারাগারে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়। তাই পরবর্তীতে এ মামলা হতে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

অপর ৬ আসামি হলেন- এরশাদ শিকদারের সহযোগী লস্কর মোহাম্মদ লিয়াকত, মো. নূরে আলম, ইদ্রিস জামাই, জয়নাল, জামাই ফারুক ও মো. রুস্তুম আলী। আসামিদের মধ্যে লস্কর মো. লিয়াকত বিচার চলাকালে মারা যাওয়ায় অব্যাহতি পেয়েছেন। আর নূরে আলম মামলায় রাজসাক্ষী হওয়ায় তিনিও অব্যাহতি পেয়েছেন। ফলে অপর চার আসামির বিরুদ্ধে রায় ঘোষণা করবে আদালত। যাদের মধ্যে জামাই ফারুক ও ইদ্রিস ২২ বছর ধরে রয়েছেন এবং অপর দুই আসামি জয়নাল ও রুস্তুম আলী পলাতক।

মামলায় বলা হয়, ১৯৯৮ সালের ৫ মার্চ সকাল ৭টায় আজিজ চাকলাদার ওরফে ঢাকাইয়া আজিজ লালবাগ রোডের বাসা থেকে খুলনা যাওয়ার পথে অপহরণ করে আসামিরা হত্যা করেন। হত্যার পর খুলনার রূপসা নদীতে তার লাশ ফেলে দেওয়া হয়।

২০০০ সালের ৪ এপ্রিল লালবাগ থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুর রাকিব খান সাতজনের বিরুদ্ধে দাখিল করেন। একই বছর চার্জ গঠন করে আদালত।

মামলার নথি থেকে দেখা যায়, এরশাদ শিকারের ১২টি হত্যা মামলায় রাজসাক্ষী ছিলেন নূরে আলম। তার দেওয়া সাক্ষীর ভিত্তিতে এরশাদ শিকদারে ফাঁসি হয়। ১৯৯৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে কারাগারে থাকা নূরে আলম এ মামলায় রাজসাক্ষী দেওয়ার পর গত বছর কারামুক্ত হয়েছেন।

ঢাকাটাইমস/১৯ফেব্রুয়ারি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :