পাঠকের লেখায় স্বকৃত নোমানের ‘বানিয়াশান্তার মেয়ে’

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১৯:২৪ | প্রকাশিত : ০৫ এপ্রিল ২০২০, ১৫:০৭

করোনাকালের পাঠ

এমরান কবির

‘বাংলা ছোটগল্প কি মরে যাচ্ছে’? -মহান কথাশিল্পী আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের এই বিখ্যাত উক্তি, বিশ্লেষণ এবং আশঙ্কার কথা মনে পড়ে, যখনই আমি ছোটগল্প পড়তে শুরু করি। গত বইমেলায় প্রকাশিত এ সময়ের একজন আলোচিত এবং শক্তিশালী কথাশিল্পী স্বকৃত নোমানের লেখা ছোটগল্পগ্রন্থ ‘বানিয়াশান্তার মেয়ে’ পড়বার সময়ও এ ঘটনা ঘটল।

যা হোক, আমি পাঠক হিসেবে এর রসাস্বাদনকেই প্রাধান্য দিলাম। এবং এর রচনাশৈলী, উপস্থাপন, দৃষ্টিভঙ্গি, অন্তর্নিহিত বুনন এবং বার্তায় মুগ্ধ হয়ে গেলাম। ভাষা এমন গতিশীল, বক্তব্য এমন প্রাঞ্জল, দৃশ্যগুলো এমন বাস্তবানুগ। পাঠশেষে নিজেকে সমৃদ্ধ মনে করলাম। কারণ গ্রন্থটি আমার একটুও সময় নষ্ট করেনি, বরং সময়কে সমৃদ্ধ করেছে। প্রত্যেকটি গল্পই অসাধারণ। শুরু করলে শেষ না করে থাকা যায় না্। আর শেষ বাক্যে না যাওয়া পর্যন্ত গল্পের পরিণতি বিষয়ে কোনো কিছুই আঁচ করা যায় না। প্রত্যেকটা গল্প পাঠ শেষে কিছুক্ষণ স্তব্ধ হয়ে বসে থাকতে হয়।

কথাশিল্পী স্বকৃত নোমান নিছক গল্প বলার জন্য গল্প বলেন না। তিনি একটা বার্তা দিতে চান। এই বার্তা যখন আমি পাঠক হিসেবে ধরতে পারি তখন মনে হয় স্বকৃত নোমান দেশ ও দশের প্রতি এক বিশাল দায়বদ্ধতা নিয়ে তাঁর শিল্প রচনা করেন। শিল্পের প্রতি এমন সৎ হলে মহৎ সাহিত্য রচিত হবেই।

...................................................................

যদি স্বকৃত নোমানকে জানা হতো

সনোজ কুণ্ডু

দুঃসহ করোনাকাল। সুখের সরোবরে সূর্যস্নানের সংজ্ঞা কিংবা দুঃখ নামক অসহ্য স্মৃতিকে অন্ধ মলাটে চাপা দেবার সময় নয়-সময় যখন বেঁচে থাকার যুদ্ধে। মানবতা কিংবা রাষ্ট্রযন্ত্র যখন অস্তিত্বের ঘোর অন্ধকারে নিমজ্জিত। ‘Stay Home’ যখন নিরাপত্তার চাবিকাঠি, তখন সভ্যতার হাহাকার ভুলতে হাতে তুলে নিলাম 'বানিয়াশান্তার মেয়ে' নামক গল্পের বইটি, যার রূপকার আমার শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার একজন শিল্প শ্রমিক স্বকৃত নোমান।

পাণ্ডিত্যের কিংবা মূর্খতার ঢোল বাজাতে নয়, সাহিত্যনির্ভর প্রকৃত গল্পকারকে আমার হৃদয় মন্দিরে স্থান দিতে কখনই কার্পণ্য করি না। তেমনি আমি ভুলে যেতে চাই না হাসান আজিজুল হক, সেলিনা হোসেন, ইমতিয়ার শামীম, হরিশংকর জলদাস, জাকির তালুকদার, রাশেদ রহমান, ইমরান কবির, আর অখ্যাত সনোজ কুণ্ডুর নাম। অক্ষমতা আমার। সেরা কথাশিল্পের তালিকা আরও দীর্ঘ হতে পারতো যদি স্বকৃত নোমানকে জানা হতো।

বইটিতে লেখক জীবনের বিস্তীর্ণ ধারাপাতে বুনে গেছেন স্বপ্ন চৈতন্যের কিংবা দীর্ঘশ্বাসের বীজ। মানবের অন্তর্জগতের স্বরূপ অন্বেষার জাদুটানে মধুর শিল্পসৌধ নির্মাণের তৃষ্ণায় জন্ম দিয়েছেন আরও একটি গর্বিত সন্তান 'বানিয়াশান্তার মেয়ে'। নিবিড় আরাধনায় তার কলমের অগ্রভাগকে রক্তজলে তীক্ষ্ণ করতে, সাধনবোধের মহীরূপটি জাগিয়ে তুলতে সৃষ্টি করেছেন চরজনম, বগিনম্বর ৮৩০৫, শুকলাল ডোম, বানিয়াশান্তার মেয়ের মতো নান্দনিক গল্পসমূহ। গোটা বইতে বোধিতন্ত্রের নিটল দিঘি থেকে কুড়িয়ে এনেছেন সাহিত্যের থোকা থোকা হীরা-মানিক্য।

সনোজ কুণ্ডু

কথাসাহিত্যিক, কণ্ঠ ও যন্ত্রশিল্পী এবং সম্পাদক- শশী।

প্রভাষক, সরকারি মুকসুদপুর কলেজ, গোপালগঞ্জ।

[ফেসবুক থেকে নেওয়া]

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :