যশোরে গ্রাম লকডাউন ঘোষণা যুবকদের!

যশোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২২:৪৮ | প্রকাশিত : ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২২:১০

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার দোহাকুলা ইউনিয়নের বোয়ালিয়া ও নওয়াপাড়া গ্রামকে সোমবার লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় যুবকরা। গ্রামের মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে রাখতে নিজেরাই লকডাউনের ঘোষণা করেন তারা। গ্রাম দুটির ছয়টি প্রবেশ পথে বাঁশ দিয়ে ফটক তৈরি করে বাধা দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে গ্রামজুড়ে ছিটানো হয়েছে জীবাণুনাশক। প্রবেশ পথে রাখা হয়েছে হ্যান্ডস্যানিটাইজার।

বাইরের এলাকার কাউকেই ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না তাদের গ্রামে। আবার যৌক্তিক কারণ ছাড়া কাউকে গ্রাম থেকে বের হতে দেয়া হচ্ছে না। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া আফরোজ এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না। যৌক্তিক কারণ ছাড়া লকডাউন ঘোষণা করা যায় না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বোয়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা অমরেশ বিশ্বাস নামের এক যুবক জানান, বাইরে থেকে অনেক লোকজন আমাদের গ্রামে এসে ঘুরাঘুরি করে। সোমবার সকালে এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানানো হয়। তিনি বাইরের লোকের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে বলেছেন। আমরা বোয়ালিয়া গ্রামের দুটি প্রবেশপথে বাঁশ দিয়ে ঘিরে দিয়েছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বাইরের কাউকে আমাদের গ্রামে ঢুকতে দেব না।

একই কথা বলেন তার সঙ্গে থাকা পলাশ, সমীর, শ্যামল, জসীম, সৈকত ও সৌরভ।

এদিকে বোয়ালিয়ার গ্রামের মতো এ উনিয়নের নওয়াপাড়া গ্রামকেও লকডাউন করেছে স্থানীয়রা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য রওশন ইজদানী জানান, নওয়াপাড়া গ্রামের চার প্রবেশপথ দোয়াল এলাকা, বটতলা এলাকা, বাহারুল ডাক্তারের দোকান এলাকা ও কালুডাঙ্গা এলাকায় লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় যুবকেরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় দোহাকুলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু মোতালেব তরফদার বলেন, ‘প্রতিদিন বাইরের লোকজন এই দুই গ্রামে এসে ভিড় করছে। আড্ডাবাজি করছে। এটা আমাকে জানায় কয়েকজন যুবক। আমি তাদেরকে বলেছি বাইরের লোকজন প্রবেশ বন্ধ করে দিতে।’

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া আফরোজ বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। যৌক্তিক কারণ ছাড়া লকডাউন ঘোষণা করা যায় না। কে বা কারা এটা করলো আমি খোঁজ নিচ্ছি।’

(ঢাকাটাইমস/৬এপ্রিল/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :