পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশে আম্পানের ‘দুর্বল’ আঘাত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ মে ২০২০, ২২:৪৭ | প্রকাশিত : ২০ মে ২০২০, ২২:৪৩
আম্পানের আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকা

সুপার সাইক্লোন আম্পান বাংলাদেশের স্থলভাগে আঘাত হেনেছে। তবে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট এই ঘূর্ণিঝড়টি মূল আঘাত হেনেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে। ভারত হয়ে বাংলাদেশে আঘাত হানায় ঘূর্ণিঝড়টি অনেকটা দুর্বল হয়ে যায়। এতে বাংলাদেশ অংশে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, আম্পানের একটি অংশ সাতক্ষীরা ও খুলনা অঞ্চল দিয়ে ঢুকে যশোর ও নড়াইল জেলার দিকে আজ রাতেই চলে যাবে। এই পর্যন্ত এর বাতাসের গতিবেগ হবে ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটারের মতো। সেখান থেকে মাগুরা, গোপালগঞ্জ, রাজবাড়ী, সিরাজগঞ্জ থেকে জামালপুরের দিকে এগিয়ে যাবে রাত ১২টা থেকে ১টার মধ্যে।

আবহাওয়া বিভাগের উপ-পরিচালক কাওসার পারভিন জানিয়েছেন, সাইক্লোনের মূল কেন্দ্র আসলে পশ্চিমবঙ্গে, এটি এখন সাতক্ষীরা-খুলনা অঞ্চল থেকে উত্তর দিকে যাচ্ছে। বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ৮০ হতো ১০০ কিলোমিটার। এটি কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সামসুদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ঝড়টি এরইমধ্যে উপকূল অতিক্রম করেছে। এটি এখন ধীরে ধীরে দুর্বল হবে। ইতিমধ্যে উপকূলের নিচু এলাকা ৫/৬ ফুট পানি এসে প্লাবিত হয়েছে। এছাড়া, ঝোড়ো হাওয়াসহ ভারী বৃষ্টি হবে প্রায় সারারাতই। এতে পানির উচ্চতাও বাড়বে। ঝড়ো বাতাসের গতিও একেবারে কম থাকবে না।’

আবহাওয়াবিদ বলেন, ‘আম্পানের মূল অংশ ভারতে আঘাত হানায় আমাদের এখানে ক্ষতি কম হবে বলে আশা করছি। তবে আম্পানের প্রভাবে আজ এবং আগামীকাল বৃহস্পতিবার বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করবে প্রায় সারাদেশেই। একারণে আগামীকাল সকাল পর্যন্ত মোংলা ও পায়রায় ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং কক্সবাজার ও চট্টগ্রামে ৯ নম্বর বিপদ সংকেত থাকবে।’

ঘূর্ণিঝড়টি বুধবার দুপুরের পর বঙ্গোপসাগরের পূর্বদিকে সুন্দরবন ঘেঁষে পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে আছড়ে পড়ে৷ স্থলভাগে উঠে আসার প্রক্রিয়ায় পশ্চিমবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকায় তাণ্ডব চালাতে চালাতে আম্পান বাংলাদেশ উপকূলের দিকে অগ্রসর হয়৷

ঘূর্ণিঝড় আম্পান বিকাল ৫টার দিকে উপকূলের বাংলাদেশ অংশে পৌঁছায়। খুলনা, সাতক্ষীরা, পটুয়াখালী, ভোলা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজারসহ বিভিন্ন জেলায় আম্পানের তাণ্ডবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ভোলা, পটুয়াখালী ও চট্টগ্রামে আম্পানের তাণ্ডবে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। কাঁচা ঘরবাড়ি, গাছপালা ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত চিত্র আগামীকাল বৃহস্পতিবার নাগাদ পাওয়া যেতে পারে।

(ঢাকাটাইমস/২০মে/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত