কোহলির সঙ্গে লাইভ সেশনের মাঝেই বর্ণবিদ্বেষের শিকার ছেত্রী

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ মে ২০২০, ০৯:১২

‘ইয়ে নেপালি কৌন হ্যায়?’ যার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায় ‘এই নেপালি কে?’ দেশের জার্সি গায়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচে ভারতের হয়ে সর্বাধিক গোলস্কোরার সুনীল ছেত্রীকে এমনই তির্যক বর্ণবিদ্বেষমূলক মন্তব্য ছুঁড়ে দিলেন জনৈক এক ব্যক্তি। যা নিয়ে তোলপাড় ফুটবল মহল।

বরাবরই বর্ণিবিদ্বেষের ঘোর বিরোধী ভারতের ফুটবল দলের অধিনায়ক। চিন থেকে আগত করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের উত্তর-পূর্বের বহু সাধারণ মানুষ, ছাত্র-ছাত্রীদের জাতিগত বিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছে। লকডাউনের মাঝেই সুর চড়িয়ে ঘটনার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন সক্রিয় ফুটবলার হিসেবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলের মালিক। এবার বিরাট কোহলির সঙ্গে লাইভ চ্যাট সেশনের মাঝেই ছেত্রীকে লক্ষ্য করে ভেসে এল তির্যক মন্তব্য।

যশ শর্মা নামে এক ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী গত রবিবার লাইভ চ্যাট সেশনের মাঝেই ছেত্রীকে উদ্দেশ্য করে জিজ্ঞেস করেন, ‘এই নেপালিটা কে?’ ভারতীয় ফুটবলের একজন কিংবদন্তি হিসেবে এমন মন্তব্য ছেত্রীর জন্য যে ভীষণই সম্মানহানিকর সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। একইসঙ্গে দেশের উত্তর-পূর্বে বসবাসকারী মানুষদের প্রতি বাকি দেশের সংকীর্ণ মনোভাবেরই পরিচায়ক এমন ঘটনা। ভারতীয় অধিনায়কের প্রতি এমন মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন ছেত্রীর অনুরাগীরা।

ছেত্রীকে কেউ নাই চিনতে পারেন, তা বলে এমন জাতিগত বিদ্বেষ কাম্য নয় একেবারেই- মনে করছেন নেটাগরিকরা। এক অনুরাগী লিখেছেন, ‘ভারতে বর্ণবিদ্বেষের আধিক্য আরও একবার প্রমাণ হল। ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ককে নেপালি সম্বোধন করায় দেশের উত্তর-পূর্বের মানুষের প্রতি সংকীর্ণ মনোভাব আরও একবার প্রকাশ পেল। ছেত্রীকে না চেনাটা অপরাধ নয়, কিন্তু উত্তর-পূর্বের মানুষদের নেপালি, চিংকি এসব সম্বোধন করা বন্ধ হোক। এটা ভীষণই লজ্জার।’

উল্লেখ্য, করোনার জেরে উত্তর-পূর্বের একাধিক মানুষ এমন জাতিগত বিদ্বেষের শিকার হওয়ায় রুখে দাঁড়িয়েছিলেন ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক। ছেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, ‘যারা এসব করছেন তারা আমার কাছে অজ্ঞ ছাড়া কিছুই নন। এটা সঠিক কাজ নয়। এগুলো একেবারেই কাম্য নয়।’

(ঢাকাটাইমস/২১ মে/এআইএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত