ঘরবন্দি অবস্থায় ফ্যাশনে যেভাবে পরিবর্তন আনবেন

ঢাকা টাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ২৬ মে ২০২০, ১৮:৩৯ | প্রকাশিত : ২৬ মে ২০২০, ০৯:১৯

ব্যক্তিগত অনুভূতির অভিব্যক্তি হলো ফ্যাশন। বেশিরভাগ মানুষ বাইরে একরকম ফ্যাশন করেন এবং ঘরে থাকলে আরেক রকম। করোনাভাইরাস পূর্ববর্তী সময়ে ঘরে বাইরে ভিন্ন ভিন্ন ফ্যাশনে থাকলেও করোনায় ঘরবন্দি অবস্থায় অনেকেই তাতে বদল এনেছেন। বলিউড অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খান ও সোনম কাপুরও তেমনটি করেছেন।

ঘরবন্দি অবস্থায় ফ্যাশনে এমন পোশাক নির্বাচন করতে হবে যেন আরামদায়ক হয় এবং সেই সঙ্গে অফিসের অনলাইন মিটিংগুলোতেও যুক্ত হওয়া যায়। এছাড়া কাজে মন বসে এমন পোশাক নির্বাচনও জরুরি। কারণ সঠিক পোশাক আপনার কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পারে।

ঘরবন্দি অবস্থায় কেমন পোশাক নির্বাচন করা উচিত চলুন তা জেনে নিই-

১. একটি ফ্রেশ চেহারা, পরিষ্কার ও ফ্রেশ কাপড় ও ধোয়া চুল।

২. এমন কাপড় যা আপনাকে ভাল মানায়- এমনকি শরীরে ফিটিং কোনো টি-শার্টও হতে পারে। সহকর্মীদের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলার সময় এর ওপর একটি জ্যাকেট বা ব্লেজার পরে নিন।

৩. যদি আপনার আত্মবিশ্বাসকে আরও বাড়িয়ে দেয় তবে আপনার নেকপিস বা আপনার পছন্দের জুতো পরুন।

সর্বদা মনে রাখবেন, অতিরিক্ত পোশাক পরে নিজেকে উপস্থাপন করা বোকামী। সবসময় হালকা পোশাকেই মার্জিত ভাব আনা বুদ্ধিমানের কাজ।

আপনি কি জানেন, প্রতি বছর ৯৫ শতাংশ টেক্সটাইল বর্জ্য পুনরায় ব্যবহার করা যেতে পারে। এ কারনে ঘরবন্দি অবস্থায় আপনি আপনার পুরনো কাপড়ের পুনর্ব্যবহার করতে পারেন। পুরনো কাপড় পুনর্ব্যবহার করতে কী করা উচিত চলুন তা জেনে নিই-

আপনার পুরনো পোশাকগুলো একসঙ্গে প্যাকেট করুন। তারপর দোকানপাট খুললে সেগুলো কোনো ডিজাইনারের কাছে নিয়ে যান। তিনি নতুন ডিজাইন দিয়ে পুরনো কাপড়গুলোকে নতুন করে দিতে পারেন। যা আপনার পছন্দ হবে।

এছাড়া যেসব কাপড় আপনি খুব বেশি ব্যবহার করেননি বা আর করতে চান না সেগুলো কাউকে দিয়ে দিন, যারা এটি পেয়ে খুশি হবে। অথবা ব্যবহৃত পণ্য বিক্রি করে এমন ওয়েবসাইটে দিয়ে দিন।

আপনি যদি সৃজনশীলতা পছন্দ করেন তাহলে নিজের পুরনো কাপড়গুলোকে নতুন রূপ দিতে পারেন। নিজের ডিজাইনের পোশাকগুলো পরে মানসিক শান্তি পেতে পারেন।

ঢাকা টাইমস/২৬মে/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফ্যাশন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :