সেনবাগে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ

নোয়াখালী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ জুন ২০২০, ২২:৩০

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে ইকবাল হোসেন (১৮) এক শিক্ষার্থীসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছে। ঘটনায় আব্দুল গোফরান নামে এক সাবেক ইউপি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকাল ৩টার দিকে বালিয়াকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আহত শিক্ষার্থী ইকবাল হোসেনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা বলছে, বালিয়াকান্দি গ্রামে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার গোফরানের সাথে একই বাড়ির মাঈন উদ্দিনের সঙ্গে একটি পুকুরের অংশীদারিত্ব নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে একাধিকবার শালিস বৈঠক হয়েছে। এ বিরোধের জের ধরে দুপুর আড়াইটার থেকে গোফরান মেম্বার জোরপূর্বক পুকুরে মাছ ধরতে জাল ফেললে মাঈন উদ্দিন বাধা দেয়। পরে গোফরান মেম্বার তার লোকজন নিয়ে চলে যায়। বিকাল ৩টার দিকে গোফরান তার নাতি গোলাম মোস্তফাসহ ২০-২৫ জনের একদল বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে মাঈন উদ্দিনের ঘরে অতর্কিত হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা এলোপাতাড়ি গুলি করলে মাঈন উদ্দিন গুলিবিদ্ধসহ সংঘর্ষে অন্তত ৮ জন আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং গোফরান মেম্বারকে আটক করে।

মাঈন উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, জোরপূর্বক পুকুরে মাছ ধরতে বাধা দেওয়ায় গোফরান মেম্বার ও তার নাতি ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে আমার বসতবাড়িতে সন্ত্রাসী ও গুলি হামলা চালিয়েছে। তাদের হাত থেকে নারীরাও রেহায় পায়নি, পিটিয়ে জখম করেছে তাদের।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. সৈয়দ মহিউদ্দিন আব্দুল আজিম জানান, শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবককে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে ১নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল বাতেন মৃধা বলেন, ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য গোফরানকে আটক করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

(ঢাকাটাইমস/১জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :