করোনা সন্দেহে মাকে ঢামেকের গেইটে ফেলে গেল ছেলে!

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ জুন ২০২০, ২২:৪০

করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকায় এক ছেলে তার বৃদ্ধ মাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গেইটে ফেলে গেছেন। দুদিন সেখানে পড়ে থাকার পর ওই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ। তিনি বর্তমানে ঢাকা মেডিকেলের করোনা ইউনিটের নতুন ভবন ৭০২ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আব্দুল খান ঢাকা টাইমসকে বলেন, শনিবার দুপুরে খবর পাই এক নারী হাসপাতালের নতুন ভবনের সামনে পড়ে আছেন। তাকে তার ছেলেরা ফেলে গেছে করোনা সন্দেহে। পরে নতুন ভবনের সামনে থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। তখন তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। পরে তাকে করোনা ইউনিট নতুন ভবনের ৭০২ নম্বর ওয়ার্ডের ১০ নম্বর বেডে ভর্তি করা হয়।

ওই নারীর নাম মনোয়ারা বেগম ওরফে মনিরা। তার স্বামীর নাম শাহজাহান মিয়া। বাড়ি ময়মনসিংহ হালুয়াঘাট উপজেলার জয়রামপুর গ্রামে। পরিবার নিয়ে মিরপুর কমার্স কলেজের পাশের একটি বস্তিতে থাকেন।

ওই নারীর বরাত দিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুল খান বলেন, ওই নারী বস্তিতে থাকা অবস্থায় তার শ্বাসকষ্ট হয়। এজন্য তার বাড়িওয়ালা সালাম সন্তানদের বলেন, তাদের মাকে যেন বাড়ি থেকে অন্যত্র নিয়ে যান। নারীর করোনা উপসর্গ থাকায় বস্তিতে তা ছড়িয়ে পড়তে পারে।

পরে ছেলে মোজাম্মেল সরকার ও বাড়িওয়ালা সালাম তাকে দুদিন আগে ঢাকা মেডিকেলের নতুন ভবনের সামনে ফেলে যান। এরপর আর কোনো খোঁজ নেননি। তিনি তিনদিন ধরে এখানে ঝড়বৃষ্টিতে ভিজে পড়ে আছেন বলে জানিয়েছেন অ্যাম্বুলেন্স চালকরা। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ওই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করায়।

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে আব্দুল খান বলেন, ওই নারীর অবস্থা বেশি ভালো নয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের ওয়ার্ড মাস্টার আবুল হোসেন ঢাকা টাইমসকে বলেন, ওই নারীকে ভর্তি করা হয়েছে। তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। এখন তার কিছু পরীক্ষা করা হচ্ছে এবং করোনা পরীক্ষাও করানো হবে।

(ঢাকাটাইমস/০৬জুন/এএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :