‘ভীত নই, হতাশ নই, উত্তরণের পথে দৃঢ় পায়ে হাঁটব’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ জুন ২০২০, ১৫:০৫

স্বাস্থ্যসেবা খাতের অব্যবস্থাপনা নিয়ে যে সব অভিযোগ আছে তা রাতারাতি বদলে ফেলা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের নতুন সচিব মো. আবদুল মান্নান। তবে তিনি একে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন। আর ভীতও নন এনিয়ে। চিত্র বদলাতে এগিয়ে যাবেন দৃঢ় পায়ে। এমন প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে তিনি এ বিষয়টি তুলে ধরেন।

প্রার্থনা, হ্যাশট্যাগ দিয়ে আবদুল মান্নান লেখেন, ‘ভাবছি, সম্প্রতি আমার একটি বদলিকে কেন্দ্র করে (এটি পদোন্নতি নয়, স্থান পরিবর্তন) দেশব্যাপী এমনকি দেশের বাহির থেকেও আমার অগণিত বন্ধু, সহকর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষী, বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের সতীর্থ ও নিত্যশুভার্থীগণ আমার অতীত কর্মময়তা বিবেচনা করে যে অভাবনীয় আশাবাদ, উচ্ছ্বাস ও গগনস্পর্শী প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন তা আমাকে রীতিমতো বিব্রত ও বাকরুদ্ধ করেছে। যুগপৎভাবে আমাকে এক কঠিনতম চ্যালেঞ্জের সামনে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে।’

সচিব প্রশ্ন তোলেন, ‘জাতীয় জীবনের এমন উদ্বেগ, উৎকন্ঠা ও মানুষের আশা আকাঙ্ক্ষার বাস্তব রূপদান, চাওয়া পাওয়ার মিল অমিলে আমরা কী বিস্ময়কর কিছু করে উঠতে পারবো? বিদ্যমান এবং দৃশ্যমান চিত্রটি কী রাতারাতি বদলে দেয়া যাবে?’

এগিযে যাওয়ার আত্মপ্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, ‘তবুও বলছি, আমি মোটেও ভীত নই, হতাশ নই, জয়ের ব্যাপারে, উত্তরণের পথে আত্মপ্রত্যয়ে দৃঢ় পায়ে সামনে হেঁটে যাবো। আমি সততায় বিশ্বাস করি, এ দেশ আমাকে অনেক দিয়েছে যা কখনো ভাবিনি। আমাদের কী কিছুই করণীয় নেই এই মাটির জন্যে? রজনীকান্ত সেন এর কথায়, ‘আমি অকৃতি অধম বলেও তো কিছু কম করে মোরে দাওনি।’

বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ৮ম ব্যাচের কর্মকর্তা আবদুল মান্নান লেখেন, জানি, এবারের এ যাত্রার মূল সারথি হয়ে আছেন সমগ্র দেশবাসী ও বাঙালি জাতি। চেতনায় ও প্রেরণায় আছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব এবং তাঁর যোগ্যতম কন্যা মানবিক, সংবেদনশীল ও বিশ্বনন্দিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমার প্রিয় শুভানুধ্যায়ীগণের কাছ থেকে বরাবরের মতো নিরন্তর দোয়া ও শুভকামনা প্রত্যাশা করছি।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ জানুয়ারি মো. আবদুল মান্নানকে সচিব পদে পদোন্নতি দিয়ে ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছিল। এরপর গত ৪ জুন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগে নতুন সচিব হিসেবে তাকে নিয়োগ দেয় সরকার।

(ঢাকাটাইমস/৭জুন/এইচএফ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রশাসন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :