করোনায় ৪৫০ মৃতের সৎকার করেছে ‘ইসলামী আন্দোলন’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ জুলাই ২০২০, ১৭:২৮

কোভিড-১৯ সৃষ্ট বৈশ্বিক বিপর্যয়ে করোনা আক্রান্ত মৃতদের সৎকারে যখন স্বজনদের পাওয়া যাচ্ছিল না, তখন মৃতদের সৎকার করতে এগিয়ে আসে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেম। নিয়মতান্ত্রিক সকল কার্যক্রম স্থগিত করে মানুষের সেবায় নিয়োজিত হয় রাজৈনতিক দলটি।

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশে ধরা পড়লে দলটির আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম (চরমোনাই পির) সকল সহযোগী সংগঠনের প্রতি জনসচেতনতা সৃষ্টি, সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ ও সামর্থ্যহীন মানুষদের সার্বিক সহযোগিতায় বিশেষ নির্দেশনা প্রদান করেন। তারই আলোকে দলের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে শুরু করে তৃণমূল পর্যন্ত সকল শাখায় ত্রাণ কমিটি, চিকিৎসা সহায়তা কমিটি, ফসল কাটা কমিটি, করোনায় মৃত ব্যক্তিদের লাশ দাফন কমিটি গঠনের মাধ্যমে গণমানুষের সেবায় আত্মোৎসর্গ করেছেন দলের নেতাকর্মীরা।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় সমাজ কল্যাণ বিভাগের ৩০ জুন ২০২০ইং তারিখ পর্যন্ত রিপোর্টে দেখা গেছে, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক এ পর্যন্ত এক কোটি ৩৬ হাজার দুইশত ত্রিশ জন মানুষের হাতে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন দলের নেতাকর্মীরা। এছাড়া ২৫ হাজার মানুষকে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান, ৫ হাজার পরিবারের ফসল কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেয়া এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারীদের দাফন-কাফন, সৎকার করতে সারাদেশে পাঁচশত দাফন-কাফনের কাজ করেন। সৎকার টিমের ১০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক ৩০ জুন পর্যন্ত মুসলমান, হিন্দু ও খ্রিস্টানসহ মোট চারশত পঞ্চাশ লাশ দাফন কাফন ও সৎকার করেছে।

সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম গত ১ এপ্রিল ২০২০ তারিখ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ভিডিও কনফারেন্সে বলেন, “চলমান সংকটে আমরা মানুষের পাশে থাকব। আমরা ধর্ম-বর্ণ, দল-মত নির্বিশেষে প্রয়োজনানুসারে সর্বস্তরের মানুষের পাশে দাঁড়াব ইনশাআল্লাহ।”

তার নির্দেশনা অনুযায়ী একাধিক জেলা দাফন টিম হিন্দু ও খ্রিস্টান ধর্মালম্বী মৃত ব্যক্তির সৎকার করেছে। করোনা দুর্যোগে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সর্বস্থরের নেতাকর্মীরা নিজ নিজ সামর্থ অনুযায়ী এগিয়ে এসেছেন।

এ ব্যাপারে মুফতি রেজাউল করিম বলেন, যারা মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের রাজি ও খুশির জন্য এই মহৎ সেবায় অংশ নিয়ে মানুষের দুর্দিনের সাথি হয়েছেন তাদের কাজের উত্তম প্রতিদান একমাত্র আল্লাহ রাব্বুল আলামিন দেবেন। তিনি বলেন, আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি। যতদিন এই মহামারী শেষ না হবে ততদিন পর্যন্ত সামর্থ অনুযায়ী কর্মহীন অসহায় মানুষের সহযোগিতায় আমরা নিয়োজিত থাকব।

ঢাকাটাইমস/১১জুলাই/এসআর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :