‘কিছু অসাধু ব্যক্তির জন্য দেশ-বিদেশে ইমেজ নষ্ট হচ্ছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইইমস
 | প্রকাশিত : ১১ জুলাই ২০২০, ২২:০৩

কিছু অসাধু ব্যক্তির অসৎ কাজের জন্য দেশ-বিদেশে আমাদের ইমেজ নষ্ট হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। এসব বিষয় যেন পুনরায় না ঘটে সে বিষয়ে সবাইকে মনোযোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মন্ত্রী।

শনিবার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) আয়োজিত বেসরকারিখাতের দৃষ্টিতে বাংলাদেশের অর্থনীতির বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ প্রেক্ষিত’ শীর্ষক ওয়েবনারে পরিকল্পনা মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, ‘কোভিড-১৯ সম্পর্কে প্রথমদিকে আমাদের ধারণা না থাকায় স্বাস্থ্যখাতে কিছুটা দুর্বলতা ছিল, তবে সময়ের ব্যবধানে আমরা তা কাটিয়ে উঠেছি।’

ব্যাংকিং খাতে আরও ডিজিটাইলাইজেশন এখন সময়ের দাবি উল্লেখ করে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ‘প্রান্তিক পর্যায়ের জনগণের ব্যাংক হিসাব না থাকায় সরকার কোভিড-১৯ মোকাবেলায় নগদ আর্থিক সহায়তা সবার মাঝে পৌঁছাতে পারেনি।’

এম এ মান্নান বলেন, ‘বাজেটে সরকার করপোরেট করসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিয়েছে এবং সামনের দিনগুলোতে সরকার ও বেসরকারি খাত একযোগে কাজ করতে হবে।’

কোভিড-১৯ মহামারি নিয়ন্ত্রণে ভিয়েতনামের উদাহরণ উপস্থাপন করে মন্ত্রী বলেন, ‘এক্ষেত্রে আমরা তা অনুসরণ করতে পারি।’ মন্ত্রী ব্যবসা-বাণিজ্য সংশ্লিষ্ট আইনসমূহের আরও সংস্কার একান্ত জরুরি বলে মন্তব্য করেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আশিয়ান অঞ্চলের দেশগুলোতে আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে হলে, বাংলাদেশকে আশিয়ানের পর্যবেক্ষক মর্যাদা অর্জন করতে হবে।’ এছাড়াও তিনি প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে আরও বাণিজ্য সম্প্রসারণের ওপর জোর দেন।

এম এ মান্নান বলেন, কোভিড মহামারি আমাদের তৈরি পোশাক খাতে বিশেষ করে, মেডিকেল টেক্সটাইলে নতুন সুযোগ নিয়ে এসেছে। দেশের বেসরকারি খাতের উদ্যোক্তাদের এই সুযোগ গ্রহণের আহ্বান জানান মন্ত্রী। বর্তমান পরিস্থিত মোকাবেলায় তিনি দেশের সরকার ও বেসরকারি খাতকে সাহসিকতার সাথে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

ওয়েবনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিসিসিআই সভাপতি শামস মাহমুদ, যেখানে দেশের অর্থনীতির ২০টি খাতের বর্তমান অবস্থা ও খাতগুলোর উন্নয়নে সুপারিশ উপস্থাপন করেন।

অনুষ্ঠানের নির্ধারিত আলোচনায় পলিসি এক্সচেঞ্জ-এর চেয়ারম্যান ড. মাশরুর রিয়াজ, আনোয়ার গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ডিসিসিআইর প্রাক্তন সভাপতি হোসেন খালেদ, বিল্ড-এর চেয়ারম্যান ও ঢাকা চেম্বারের প্রাক্তন সভাপতি আবুল কাসেম খান এবং চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জ ও ঢাকা চেম্বারের প্রাক্তন সভাপতি আসিফ ইব্রাহীম অংশগ্রহণ করেন।

আবুল কাসেম খান বলেন, ‘ভুয়া কোভিড সনদ নিয়ে দেশের বাইরে যাওয়ার ফলে ইতিমধ্যে বাংলাদেশের ইমেজ ক্ষুণ্ন হয়েছে এবং এ পরিস্থিতি যেন আর বাড়তে না পারে সেজন্য সরকারকে আরও সর্তকতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আরও বাড়ানোর জন্য আমাদের অবশ্যই সহায়ক করা কাঠামা থাকতে হবে, যা কি না এশিয়া অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে উদাহরণ তৈরি করবে।’

(ঢাকাটাইমস/১১জুলাই/জেআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :