সাতক্ষীরায় হিন্দু বাড়িতে হামলা, যুবলীগ নেতার নামে মামলা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০২ আগস্ট ২০২০, ২২:০৪

সাতক্ষীরা শহরতলীর বাঁকাল খেয়াঘাট জেলেপাড়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট ও চারজনকে পিটিয়ে জখম করার ঘটনায় জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কাশেমপুরের আব্দুল মান্নানসহ পাঁচজনের নামে এবং অজ্ঞাতনামা আরো ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। বাঁকাল জেলেপাড়ার নিরঞ্জন মাখাল শনিবার সাতক্ষীরা সদর থানায় এ মামলা করেন। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হিন্দু বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, কাটিয়ার মুজিবর রহমান, তার ছেলে সৌরভ, বাঁকাল জেলেপাড়ার রমিজ ড্রাইভার ও তার ছেলে আলমগীর হোসেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, কোনো কাগজপত্র ছাড়াই শহরের দক্ষিণ কাটিয়ার সানাউল্লাহ গাজীর ছেলে মুজিবর পেশকার পুলিন মাখালের কাছ থেকে ১৫ শতক জমি পাঁচ লাখ টাকায় মৌখিকভাবে কিনেছেন- এই দাবি করে তার ছেলে শুভ, স্থানীয় রমিজ ড্রাইভার, তার ছেলে আলমগীর হোসেনসহ কয়েকজন গত ৮ জুন রাতে তাদের পাড়ায় এসে রাতের মধ্যে হিন্দুদের দেশ ছেড়ে যাওয়ার হুমকি দিয়ে যান। তা না হলে যুবলীগ নেতা মান্নানের সহায়তায় তাদেরকে দেশছাড়া করার হুমকিও দেয়া হয়।

একপর্যায়ে গত ৯ জুন সকালে ওইসব হুমকিদাতাসহ কয়েকজন সুকুমার বিশ্বাসসহ কয়েকজনের বাড়িতে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। বাধা দেয়ায় জয়দেব মাখাল, সহাদেব মাখাল, বিশ্বজিৎ মাখাল, শ্যামলী বিশ্বাস ও সরজিত কাজীকে পিটিয়ে জখম করে। তাদেরকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিরঞ্জন মাখাল বলেন, যুবলীগ নেতা মান্নানের নেতৃত্বে ৩০/৪০জন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর তার বাড়ি ও পূর্ণিমার বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয়। ভাঙচুর ও লুটপাটে বাধা দেয়ায় তাকে, তার স্ত্রী অহল্যা, সহদেব মাখাল ও বলরাম মাখালকে পিটিয়ে জখম করা হয়। এ ঘটনায় ওই রাতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের পর তারা ঝাঁটা মিছিল নিয়ে সড়ক অবরোধ করলে মুজিবর ও তার ছেলেকে পুলিশ আটক করে। কিন্তু পরে আটকদের ছেড়ে দিয়ে শুক্রবার সকালে থানায় আলোচনায় বসার কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার রাতে তিনি বাদি হয়ে যুবলীগ নেতা আব্দুল মান্নানসহ পাঁচজনের নাম ও অজ্ঞাতনামা ১৬ জনকে আসামি করে এজাহার দিলে ১ আগস্ট পুলিশ মামলা রেকর্ড করে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজজামান যুবলীগ নেতা মান্নানসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

(ঢাকাটাইমস/২আগস্ট/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :