নিজেদের প্রথম হাসপাতাল তৈরির প্রক্রিয়া শুরু ডিএনসিসির

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ আগস্ট ২০২০, ১৯:০৯

নিজেদের প্রথম হাসপাতাল তৈরির প্রক্রিয়া শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরশন (ডিএনসিসি)। মহাখালী ডিএনসিসি মার্কেটটিকে হাসপাতাল বানানোর পরিকল্পনা করপোরেশনের। এজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চাহিদাপত্র পাঠাবে নগর কর্তৃপক্ষ। তবে অনুমোদন পাওয়া ও বাজেট পাসসহ দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে হাসপাতালটি নির্মাণে।বিষয়টি অনেকটাই সময় সাপেক্ষ বলে জানিয়েছে উত্তর সিটির স্বাস্থ্য বিভাগ।

জানা গেছে, ৭ দশমিক ১৭ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত মহাখালী ডিএনসিসি মার্কেটটির আয়তন ১ লাখ ৮০ হাজার ৫৬০ বর্গফুট। সিটি মেয়র আতিকুল ইসলাম এ মার্কেটটিকে আরবান হাসপাতাল হিসেবে রুপান্তর করতে চাচ্ছেন। যদি তা হয়, তাহলে এটি হবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রথম নিজস্ব হাসপাতাল।

বিষয়টি নিয়ে ঢাকাটাইমসের সঙ্গে কথা বলেন উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোমিনুর রহমান মামুন। তিনি বলেন, মহাখালি ডিএনসিসি মার্কেটটি বর্তমানে খালি পরে আছে। ফলে করোনাভাইরাস মহামারিতে এটিকে আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।পাশাপাশি বিদেশগামীদের জন্য কোভিড পরীক্ষার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে মহাখালি ডিএনসিসি মার্কেটে।

ঢাকা টাইমসকে তিনি বলেন, ‘হাসপাতাল করতে গেলে তো অনেক কাজ। অপারেশন থিয়েটার করতে হবে, আইসিইসি করতে হবে। অনেকগুলো কাজ আছে। আমরা এখন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে একটা চাহিদাপত্র লিখছি। আগামী রবিবার আমরা চিঠিটি মন্ত্রণালয়ে পাঠাবো বলে আশা করছি। সেখান থেকে অনুমোদন আসবে। মেয়র মহোদয় অনুমোদন দেবেন, বাজেট আসবে, প্রক্রিয়া চলবে। এটা দীর্ঘ প্রক্রিয়ার ব্যাপার। সময় লাগবে।‘

মন্ত্রণালয়ের উদ্যেশ্যে লেখা চিঠিটি কেবলই চাহিদাপত্র। এখানে কোনো বাজেট বা জনবলের চাহিদার কথা উল্লেখ করা হচ্ছে না বলে জানান তিনি।

মোমিনুর রহমান মামুন বলেন, ‘আমরা শুধু একটি চাহিদাপত্র দিচ্ছি। এখানে বাজেটের ব্যাপারে বা কত শয্যা হাসপাতাল হবে, এর জন্য লোকবল বা অন্যান্য কি লাগবে তার কোনো বাজেটের বিষয় চাহিদাপত্রে থাকছে না। তবে আমরা আমাদের মতো করে এই কাজগুলো এগিয়ে রাখছি।‘

গত রবিবার ঢাকা উত্তর সিটি মেয়র আতিকুল ইসলাম মহাখালি ডিএনসিসি মার্কেটে অবস্থিত আইসোলেশন সেন্টারটি পরিদর্শন করেন। এসময় মার্কেটটিকে ৫০০ শয্যার আরবান হাসপাতালে রূপান্তরের পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নিজস্ব কোনো হাসপাতাল নেই জানিয়ে মেয়র বলেছিলেন, ‘ঢাকা সিটি করপোরেশন যখন দুই ভাগ হয় তিনটি হাসপাতালই দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে পড়েছে। মার্চের শুরুতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দিলে আমরা বলেছিলাম প্রয়োজন হলে এ মার্কেটকে আইসোলেশন সেন্টারে রূপান্তর করা হবে। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এটি আর্মড ফোর্স ডিভিশনের কাছে হস্তান্তর করা হলে আর্মড ফোর্স ডিভিশন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে মিটিং করে কাজ শুরু করেছি।‘

মেয়র বলেন, ‘যারা বিদেশ যাচ্ছেন, তারা করোনা পরীক্ষা নিয়ে সমস্যার মধ্যে থাকেন। তাই এ মার্কেটটিকে পরবর্তীতে কোভিড টেস্টের জন্য রূপান্তর করা হয়। যারা বিদেশ যাবেন, তারা যাতে করোনা টেস্টের সনদ নিতে পারেন। এ ধরনের একটি প্ল্যাটফর্ম প্রয়োজন। আমরা এখান থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোভিড টেস্টের ফল দেয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করি।’

তবে, ডিএনসিসিতে কোনো ধরনের আরবান হাসপাতাল না থাকায় করোনার পর এ মার্কেটটিকে আরবান হাসপাতালে রুপান্তর করার পরিকল্পনা রয়েছে নগর কর্তৃপক্ষের।

ঢাকাটাইমস/১৩আগস্ট/কারই

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :