সড়কে নির্মাণসামগ্রী, নিলামে ২১ লাখ টাকায় বিক্রি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:০০

সড়ক ও ফুটপাতে অবৈধভাবে নির্মাণসামগ্রী রাখায় তা জব্দ করে তাৎক্ষণিকভাবে নিলামে বিক্রি করা হয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে নিলামে আদায় হয়েছে ২১ লাখ টাকার বেশি। এছাড়া উচ্ছেদ করা হয়েছে অবৈধ স্থাপনাও।

সোমবার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) তিনটি পৃথক পৃথক অভিযানে রাজধানীর গুলশান, বনানী ও বারিধারায় অভিযান পরিচালনা করে এই নিলাম করা হয়।

অভিযানে ডিএনসিসির প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল হামিদ মিয়া গুলশানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় নগর ভবনের সামনে ফুটপাতে অবৈধভাবে রাখা বালি জব্দ করা হয় এবং ডিএনসিসির এক ঠিকাদারকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এরপর গুলশান ৯০ নম্বর সড়কে অবৈধভাবে রাখা রড, ইট, বাঁশ ইত্যাদি তাৎক্ষণিকভাবে নিলামে ১৭ লাখ ৫৫ হাজার টাকা বিক্রয় করা হয়।

এছাড়া আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতাকাব্বীর আহমেদ বনানী ও কামাল আতাতুর্ক এভিনিউতে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় বনানীতে সড়ক ও ফুটপাতে অবৈধভাবে নির্মাণ সামগ্রী তা নিলামে তিন লাখ ৫১ হাজার ৯০০ টাকায় বিক্রয় করা হয়। বনানীতে ফুটপাতে অবৈধভাবে দুটি ফ্রিজ রেখে জনচলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করায় তা নিলামে ১৪ হাজার ৩৭৫ টাকা বিক্রয় করা হয়। এছাড়া ফুটপাত ও সড়ক থেকে প্রায় ৩০টি দোকান উচ্ছেদ করা হয় এবং অবৈধভাবে ফুটপাত ও সড়ক দখল করায় এক ব্যক্তিকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ডিএনসিসির অঞ্চল-৬ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরিন নতুন বাজার থেকে বাড্ডা পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় ফুটপাত ও সড়কে অবৈধভাবে থাকা প্রায় ১০০টি অস্থায়ী দোকান, টং ঘর ইত্যাদি উচ্ছেদ করেন। এ সময় ফুটপাতে অবৈধভাবে মালামাল রাখায় এক ব্যক্তিকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি জব্দকৃত মালামাল নিলামে ২২ হাজার ৪২৫ টাকা বিক্রয় করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/১৪সেপ্টেম্বর/কারই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :