সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৪২ | প্রকাশিত : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৩৮

রাজধানীর তুরাগ থানার কামারপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আব্দুল মালেক ওরফে ড্রাইভার মালেককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এসময় দেড় লাখ জাল টাকা, ল্যাপটপ, মোবাইল এবং পাঁচ রাউন্ড গুলিসহ একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার বিকালে র‌্যাব-১ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। ভোরে তাকে তুরাগের কামারপাড়ার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব জানিয়েছে, রাজধানীর তুরাগ এলাকায় আব্দুল মালেকের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, জাল টাকা ব্যবসা, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগ পাওয়া যায়। পরে র‌্যাব তদন্ত করে জানতে পারে, আব্দুল মালেক তুরাগ থানার বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করেছেন এবং জনজীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছেন। তার ভয়ে এলাকায় জনসাধারণ মুখ খুলতে ভয় পায়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় চাঁদাবাজি, অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা এবং জাল টাকার ব্যবসা করে আসছেন বলে জানা যায়।

গ্রেপ্তারকৃত আব্দুল মালেক প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাবকে জানিয়েছেন, তিনি পেশায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিবহন পুলের একজন ড্রাইভার ও একজন তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী। তার শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি। তিনি ১৯৮২ সালে সর্বপ্রথম সাভার স্বাস্থ্য প্রকল্পে ড্রাইভার হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তী সময়ে ১৯৮৬ সালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিবহন পুলে ড্রাইভার হিসেবে চাকরি শুরু করেন। বর্তমানে তিনি প্রেষণে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা অধিদপ্তরে কর্মরত আছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, জাল নোট ব্যবসাসহ অস্ত্রের মাধ্যমে ভীতি দেখিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন।

(ঢাকাটাইমস/২০সেপ্টেম্বর/এআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :