এইচএসসিতে গতবারের ফেল শিক্ষার্থীদেরও মূল্যায়ন হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০২০, ১৭:৪০ | প্রকাশিত : ০৭ অক্টোবর ২০২০, ১৭:২৫
ফাইল ছবি

করোনার প্রভাবে আটকে থাকা এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা বাতিল করে জেএসসি ও এসএসসির ফলের গড় অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষামন্ত্রী ডা দীপু মনি জানিয়েছেন, এর পাশাপাশি ওই সব শিক্ষার্থীদেরও মূল্যায়ন করা হবে যারা গতবার (২০১৮-২০১৯ ব্যাচ) এইচএসসিতে ফেল করে এবার পরীক্ষার্থী ছিলেন।

বুধবার দুপুরে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, 'জেএসসি ও এসএসসির ফলের গড় অনুযায়ী এইচএসসির ফল নির্ধারণ করা হবে। তবে কি পদ্ধতিতে গ্রেড নির্ধারণ করা হবে সেটি নির্ধারণ ও পরার্মশের জন্য সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, শিক্ষা বোর্ড ও বিশেজ্ঞদের সমন্বয়ে একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হবে।'

তবে গতবার বিভিন্ন বিষয়ে অকৃতকার্য হওয়া যেসব শিক্ষার্থী এবার পরীক্ষার্থী ছিলেন তাদের মূল্যায়নের ক্ষেত্রে তিনি বলেন, 'সকল শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে একইভাবে মূল্যায়ন করে তাদের গ্রেড নম্বর দেয়া হবে। তবে কিভাবে তা দেয়া হবে তা কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। কারণ তারাও তো বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেবে।'

তিনি আরও বলেন, 'বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে যে টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হবে তাদের আগামী নভেম্বররের প্রথম সপ্তাহে প্রতিবেদন দিতে বলা হবে। আর এর ভিত্তিতেই ডিসেম্বরের মধ্যে তারা এইচএসসির চূড়ান্ত মূল্যায়ন ঘোষণা করবেন বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, উচ্চ মাধ্যমিকে একজন শিক্ষার্থীকে সাতটি বিষয়ে ১৩টি পত্রে পরীক্ষায় বসতে হয়। এর মধ্যে দুই বিষয়ে (সর্বোচ্চ চারটি পত্র) ফেল করলে পরের বছর শুধু ওইসব বিষয়ে পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ ছিল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরি, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহাবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হকসহ সকল শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা।

(ঢাকাটাইমস/০৭ অক্টোবর/টিএটি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :