ঠাকুরগাঁওয়ে নূর ইসলাম হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ অক্টোবর ২০২০, ২০:৪৭

কোমরে রাখা টাকা ছিনিয়ে নিতে ঠাকুরগাঁও সদরের দেবিপুর মোলানী গ্রামের মুদি দোকানদার নূর ইসলামকে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবু তাহের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মাত্র ১০ দিনের মাথায় হত্যা রহস্য উদঘাটন এবং দুজন আসামি গ্রেপ্তার ও তাদের দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দির কথা জানান ওই কর্মকর্তা।

তিনি আরো জানান, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দেবিপুর মোলানী গ্রামের নুর ইসলাম (৪৫) লাশ গত ১১ অক্টোবর তার মায়ের কবরের পাশ থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় মৃতের বড়ভাই রুহুল আমিন বাদী হয়ে একটি ক্লুলেস হত্যা মামলা করেন।

পুলিশ এ মামলার রহস্য উদঘাটনে চ্যালেঞ্জ নেয় এবং নিবিড়ভাবে তদন্ত কাজ শুরু করে। অতপর তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে মাত্র ১০ দিনের মাথায় নূর ইসলাম হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে বুধবার ভোর রাতে দুজন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তারা হলেন-দেবীপুর ওস্তাদপাড়া গ্রামের সেলিম রেজা ও একই গ্রামের আব্দুল মান্না ওরফে মাহাতাব।

গ্রেপ্তাররা জিজ্ঞাসাবাদে হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে গত ২১ অক্টোবর সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের নিকট জবানবন্দি দেয়। পরে আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করে।

পুলিশের তদন্ত এবং আসামিদের স্বীকারোক্তিতে জানা যায়, মৃত মুদি দোকানি নুর ইসলাম টাকা-পয়সা বাড়ি বা দোকানে না রেখে সব সময় কোমরে করে নিয়ে বেড়াত। সে কারণে আসামিরা তার কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে নিতে পরিকল্পনা করে এবং ঘটনার দিন রাতে সাইকেল নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে কবরস্থানের নির্জন জায়গায় পৌঁছলে গ্রেপ্তাররা তাকে আটক করে মারধর করে এবং শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে লাশ কবরস্থানের পুরাতন কবরে ফেলে দেয়। সেই সাথে মৃতের সাইকেল ঘটনাস্থলের পাশে একটি পুকুরে ফেলে দেয়। আর কোমরে রাখা টাকা হাতিয়ে নিতে তারা উভয়ে ভাগ-বাটোয়ারা করে নিয়ে নেয়।

নূর ইসলাম গত ১০ অক্টোবর শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নিখোঁজ হয়। রাত থেকে তাকে খোঁজাখুঁজি করে রবিবার দুপুরে তার বাড়ির পাশে পারিবারিক কবরস্থানে তার মায়ের কবরের উপরে তার লাশ দেখতে পায়। পরে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

(ঢাকাটাইমস/২২অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :