মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২০, ১৯:১৪ | প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৪৯

মাস্ক ব্যবহার না করলে করোনাভাইরাসের যতই ভ্যাকসিন আসুক কোনো কাজে আসবে না বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য ঘরের বাইরে সবার মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে কঠোর হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

সোমবার মন্ত্রিসভার ভার্চুয়াল বৈঠকে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন।

বৈঠকের আলোচ্য বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আজকে বলেছেন, আরও বেশি বেশি করে প্রচার করো, ফোর্স করো যাতে মানুষ মাস্ক ব্যবহার করে। মাস্ক ব্যবহার না করলে যতই ভ্যাকসিন বলেন আর ওষুধ বলেন প্রোটেকশন কোনো কাজে আসবে না।’

এসময় সচিব মাস্ক ব্যবহার নিয়ে জরিমানা আদায় করায় কাজ না হলে কঠোর শাস্তির সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান। সেক্ষেত্রে আরও সপ্তাহখানেক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে সরকার।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কোভিড-১৯ (করোনাভাইরাস) মহামারির মধ্যে জনগণকে মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে জরিমানায় কাজ না হলে শাস্তি আরও কঠোর করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। গণভবন প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এতে যোগ দেন।

মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় কোন বিষয় উঠে এসেছে জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আবারও মাস্কের বিষয়টি খুবই স্ট্রংলি এসেছে। গতকাল (রবিবার) বিভাগীয় কমিশনররা জানিয়েছেন, গত সাত দিন ধরে তারা ম্যাসিভলি ফাইন (বড় ধরনের জরিমানা) করছেন। গতকালও কয়েক হাজার লোককে জরিমানা করা হয়েছে।’

সচিব বলেন, ‘আমরা বলেছি আরও এক সপ্তাহ দেখতে। জরিমানায়ও যদি মানুষ সচেতন না হয় তাদের আরও মোটিভেশন করুন, তারপর আরেকটু স্ট্রং পানিশমেন্টে (কঠোর শাস্তি) যেতে হবে।’

ঢাকায় গতকাল ৩৭টি জায়গায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

মাস্ক না পরলে কারাবাসের সাজা দেয়া হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে দেখা যাক। হয়তো ফাইনও বাড়িয়ে দেয়া হতে পারে। এখন হাজার টাকা, ৫০০ টাকা ফাইন করছে সেটা বাড়িয়ে পাঁচ হাজার টাকা করে দিতে পারে। আমরা আরেকটু স্ট্রং পানিশমেন্টে যেতে বলছি। যারা মোবাইল কোর্ট করবে তারা মাস্কও সঙ্গে নিয়ে যাবে। যাতে মানুষকে ফাইন করার সঙ্গে সঙ্গে ওটাও দিয়ে দেয়া যায়। গতকাল কমিশনার কনফারেন্সে ধর্ম ও শিক্ষা সচিবও ছিলেন। নিজ নিজ ক্ষেত্রে আরও বড় ধরনের প্রচারণার জন্য তাদেরকে বলে দেয়া হয়েছে।’

হাসপাতালে রোগী বেড়ে গেছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘সেটা থেকে মনে হচ্ছে যে, এটা (কোভিড-১৯) আরেকটু বেড়েছে।’

(ঢাকাটাইমস/২৩নভেম্বর/বিইউ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :