ট্রাম্পের শেষ মুহূর্তগুলো ছিল একাকী, বিষণ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
| আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৪০ | প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:২০

ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শেষ মুহূর্তগুলো একাকী এবং বিষণ্ণতায় কাটিয়েছেন। সিএনএনের রিপোর্টার জিম অ্যাকস্টা এমন মন্তব্য করেছেন। তিনি সিএনএনের হয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সংবাদ কাভার করতেন।

রবিবার এক অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শেষদিনগুলোর বিষয়ে সিএনএনের চিফ মিডিয়া করেসপন্ডেন্ট ব্রায়ান স্টেলটারকে সাংবাদিক অ্যাকস্টা বলেন, 'এটা ছিল এক প্রকার বিষণ্ণ এবং করুণ দৃশ্য। প্রেসিডেন্সিয়াল রাজনীতির পুরো সময়ে ট্রাম্পকে আমি কখনও এমন একাকী দেখিনি। ২০ জানুয়ারি সকালে ওয়াশিংটনের জয়েন্ট বেস অ্যান্ডুতে ট্রাম্পের বিদায় অনুষ্ঠানে মাত্র দুইশ' লোক হাজির হয়। এরপর পরিবারের সঙ্গে তিনি ফ্লোরিডার পাম বিচে চলে যান।

প্রসঙ্গত, ৬ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আহ্বানে ক্যাপিটল হলে হামলার পর থেকেই তার পরিস্থিতি খারাপ হয়। এ ঘটনার পরে কংগ্রেস ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দফা অভিশংসন প্রস্তাব গ্রহণ করে। ফেসবুক, টুইটার ট্রাম্পকে নিষিদ্ধ করে। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন বিচার মার্কিন সিনেটে ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে শুরু হবে। অভিশংসন বিচারে শাস্তি হলে ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০২৪ সালের নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না।

ট্রাম্পকে নিয়ে সিএনএনের এই সাংবাদিক আরও বলেন, 'ট্রাম্প যদি ৬ জানুয়ারি সহিংসতা উস্কে না দিতেন তাহলে তার শেষ সময়টা অন্যরকম হতে পারতো। ক্যাপিটল হিলে হামলার পর ট্রাম্পের প্রতি সামান্য সংখ্যক মানুষের যে সমর্থন ছিল তিনি সেটাও হারান। নির্বাচনী প্রচারণা থেকে শুরু করে হোয়াইট হাউসে বসে ট্রাম্প বছরের পর বছর যে অভিশাপ তৈরি করেছিলেন শেষদিনগুলতেই সেসবই উন্মোচিত হয়েছে।'

এ প্রসঙ্গে সিএনএনের খবরে আরও বলা হয়, কংগ্রেস ভবনে হামলার পর ট্রাম্প জন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। তার জন্য এটা ছিল মারাত্মক এক অস্বাভাবিক অবস্থা। ট্রাম্পের প্রতি গণমাধ্যমের দৃষ্টিভঙ্গি বদলে যায়। ট্রাম্প সমর্থক ফক্স নিউজও ফ্লোরিডার পাম বিচে ট্রাম্পকে কভারেজের জন্য আর রিপোর্টার পাঠাচ্ছেন না।

তবে ট্রাম্প বেশি দিন শান্ত থাকবেন না মন্তব্য করে সাংবাদিক অ্যাকস্টা বলেন, আমি মনে করি ট্রাম্পের চুপ থাকা সাময়িক। যে পপুলিস্ট রাজনৈতিক শক্তি ট্রাম্পকে হোয়াইট হাউসে পাঠিয়েছিল সামনের দিনগুলোতে তাদের ফিরে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে শেষ দিনগুলোতে সর্বনিম্ন জনপ্রিয়তা নিয়ে ফেরা ট্রাম্পের বড় কোনো রাজনৈতিক দল পরিচালনা এবং পুনরায় প্রেসিডেন্ট হওয়ার সক্ষমতা নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

যদিও ট্রাম্প নিজেকে গ্রোভার ক্লিভল্যান্ডের সঙ্গে তুলনা করতে পছন্দ করেন। ক্লিভল্যান্ড আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি অবিচ্ছিন্ন দুইবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। কিন্তু ট্রাম্পের থেকেও জনপ্রিয় ছিলেন ক্লিভল্যান্ড।

হোয়াইট হাউসের বাইরে থাকা সত্ত্বেও সাংবাদিক অ্যাকস্টা ট্রাম্পকে মাঝে মাঝে ফোন দেন। তিনি ট্রাম্পকে 'মিথ্যার প্রভু' আখ্যা দেন। দেশের জন্য ট্রাম্প হুমকিস্বরুপ ট্রাম্পকে অবজ্ঞা করা উচিত নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ঢাকাটাইমস/২৫জানুয়ারি/কেআই/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :