গিনিতে বিস্ফোরণ: মৃত্যু বাড়ছেই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
| আপডেট : ০৯ মার্চ ২০২১, ১৩:২৯ | প্রকাশিত : ০৯ মার্চ ২০২১, ১২:৩৮

ইকুয়েটোরিয়াল গিনিতে সেনাব্যারাকে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৮ জনে। আহত হয়েছেন কয়েকশ লোক। রবিবার দেশটির সবচেয়ে বড় শহর বাটাতে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের তদন্ত শুরু করেছে প্রশাসন। খবর বিবিসির

মধ্য আফ্রিকার সবচেয়ে বড় এবং সমৃদ্ধ শহর বাটা। ইকুয়াটোরিয়াল গিনিরও সবচেয়ে বড় শহর এটি। উপকূলবর্তী এই শহরে প্রচুর তেল মজুত আছে। দেশটির অর্থনীতিও তেলের উপর দাঁড়িয়ে।

রবিবার বেলা ১টা নাগাদ সেখানে প্রথম বিস্ফোরণ হয়। এরপর পরপর চারবার বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে বাটা। তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে বড় বড় বাড়ি, লোহার স্ট্রাকচার। মুহূর্তের মধ্যে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয় শহরের একটি বড় অংশ। এর আগে লেবাননের বৈরুতে ঠিক এভাবেই বিস্ফোরণ হয়েছিল।

তদন্তে নেমে প্রশাসন জানতে পারে, শহরের ভিতরেই অবস্থিত একটি সেনা ছাউনিতে প্রচুর পরিমাণ ডিনামাইট রাখা ছিল। সেখান থেকেই বিস্ফোরণ হয়েছে। টেলিভিশনে দেশের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, অবহেলার কারণেই এই বিস্ফোরণ হয়েছে।

ঘটনার পর থেকেই উদ্ধারকাজ শুরু হয়। স্থানীয় মানুষ উদ্ধারে হাত লাগান। ধ্বংসস্তূপ থেকে একের পর এক শিশু, নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। সোমবার দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু মঙ্গলবার সকালের মধ্যে সেই সংখ্যা ৯৮ হয়ে যায়। এখনো ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে মৃতদেহ উদ্ধার হচ্ছে। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন অনেকে।

দেশের প্রশাসন জানিয়েছে, যাদের গাফিলতিতে এই ঘটনা ঘটেছে, তাদের সকলকে কঠিন শাস্তি দেওয়া হবে। তবে বিস্ফোরণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে সেনা ছাউনিটির। বহু সেনার মৃত্যু হয়েছে বলেও জানা গেছে।

ঢাকাটাইমস/০৯মার্চ/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :