কবিতা

বিদায়ী ভ্রমণ-সূচিকা

ড. নেয়ামত উল্যা ভূঁইয়া
 | প্রকাশিত : ২৪ মে ২০২১, ০৯:৫৩

সূর্যাস্ত কি আমার দেখাই হবে না;

অতি তাড়াতাড়িই বাড়ি ফিরতে হবে?

সৈকতে আঁকা পায়ের চিহ্ন রবে না,

বন্ধন ডোর অকালে ছিঁড়তে হবে?

ভাঙা খেয়া ঘাটে বাঁধা আছে যেই নাও,

খেয়া পারাপারে তারও দেখি তাড়া আছে,

আচমকা যেনো বইছে ঘূর্ণি বাও,

মায়ামূর্তিরা মেতেছে মাতাল নাচে।

জীবন বায়ূর অনটনে পড়ে দম,

বিষবাস্পের অতলে যাচ্ছে ডুবে,

দু্য়ারে দু্য়ারে কড়া নাড়ে দূত যম

তবু আমি আছি বিত্তলাভের লোভে।

শঙ্কা-সাগরে ডুবে যায় সব আশা

ত্রাসের জীবাণু জীবনের পিছে ধায়,

জীবনকে নিয়ে মরণ খেলছে পাশা

জীবন ফুরায় মৃত্যুর পেয়ালায়।

মহাশূন্যের ভরসাকে বুকে বেঁধে

তবুও আমি হাতড়ে বেড়াই কী যে,

শুষ্ক বুকের আর্তিতে কেঁদে কেঁদে

একাকিত্বে নিজেকে বেঁধেছি নিজে।

তবুও আমার বাড়ি ফিরবার পালা

পলকে পলকে আমাকে তাগিদে রেখে,

হৃদয়ে জ্বালিয়ে স্বজন হারানো জ্বালা

আমার বিদায়ী ভ্রমণ-সূচিকা লেখে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :