মৃত দেখিয়ে প্রতিবন্ধী নারীর ভাতা বন্ধ

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ জুন ২০২১, ১৯:৫৭

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় এক প্রতিবন্ধী নারীকে মৃত দেখিয়ে তার সরকারি ভাতা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনা ঘটেছে উপজেলার সমাজসেবা অধিদপ্তরে।

প্রতিবন্ধী এই নারীর নাম মোসাম্মদ পুতুল (২৫)। তিনি জন্মগতভাবেই শারীরিক প্রতিবন্ধী। তিনি উপজেলার কাছিপাড়া ইউনিয়নের কারখানা গ্রামের বাসিন্দা মো. আবদুর রাজ্জাক গাজীর মেয়ে। এ ঘটনা প্রায় দুই বছর পর জানতে পারেন পুতুলের স্বজনেরা।

পুতুলের বড় বোন মোসা. আয়েশা বলেন, পুতুল জন্মগতভাবে হাটা-চলা ও কথা বলতে পারেন না। ২০০৬ সাল থেকে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের কারখানা শাখার মাধ্যমে নিয়মিত ভাতা পেয়ে আসছিলেন পুতুল। সাত-আট মাসের ভাতা এক সঙ্গে উত্তোলন করতেন।

গত বছরের মাঝামাঝি সময় ব্যাংকে গিয়ে জানতে পারেন ভাতার টাকা পুতুলের হিসাব নম্বরে জমা হয়নি। সম্প্রতি ফের ব্যাংকে গিয়ে জানতে পারেন টাকা জমা হয়নি। তাই বিষয়টি জানার জন্য গত বৃহস্পতিবার উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে যান। সেখানে গিয়ে দেখতে পান ভাতাভোগির তালিকায় পুতুল ২০১৯ সালের ১ জুলাই মারা গেছেন।

কাছিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সংশ্লিষ্ট ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য রিপন সিকদার বলেন, ‘পুতুল জীবিত। অথচ তাকে মৃত দেখিয়ে ভাতা বন্ধ করে দেয়া খুবই দুঃখজনক।’

কাছিপাড়া আবদুর রশিদ মিয়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষক আবু হাসান ওরফে মিরন বলেন, ‘একজন প্রতিবন্ধী ও তার পরিবারের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করা হয়েছে। যারা একজন জীবিত ব্যক্তিকে মৃত বানিয়ে ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে তাদের শাস্তি হওয়া উচিত।’

ইউপি চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার বলেন, ‘এমনটি কিভাবে হলো বলতে পারছি না। তবে পুতুল জীবিত আছেন।’

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘মারা যাওয়ার তথ্য কিংবা নতুন প্রতিবন্ধী তালিকাভুক্তির বিষয়টি ইউনিয়ন ভাতা বাছাই কমিটি নিশ্চিত করে। এ কমিটির সভাপতি হলেন ইউপি চেয়ারম্যান এবং ইউপি সদস্যদের সবাই কমিটির সদস্য। এরপরেও কিভাবে এমন ভুল হয়েছে তা আমার বোধগম্য নয়। খুব শিগগির বাকি মাসের টাকা পাওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।’

(ঢাকাটাইমস/১২জুন/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :