সোয়া দুই কোটি শিশু খাচ্ছে এ ক্যাপসুল

নিজস্ব প্রতিবেদন, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ জুন ২০২১, ২০:০৮
ফাইল ছবি

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় পুষ্টিসেবা (এনএনএস) ও জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনায় দেশব্যাপী উদযাপিত হচ্ছে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন। পক্ষকালব্যাপী এই কর্মসূচিতে সোয়া দুই শিশুকে খাওয়ানো হচ্ছে ভিটামিন এ ক্যাপসুল। ৫ জুন থেকে দেশব্যাপী শুরু হওয়া ক্যাম্পেইনটি চলবে ১৯ জুন পর্যন্ত।

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে মহাখালীর বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান এন্ড সার্জনস অডিটরিয়ামে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক পক্ষকালব্যাপী এই কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। পরে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলের সুফল সম্পর্কে মা ও শিশুদের উদ্দেশ্যে টিকাদান কার্যক্রম বিষয়ে বক্তব্য দেন তিনি।

এর আগে গত ২৪ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পুষ্টি কার্যক্রম বাস্তবায়ন সংক্রান্ত স্টিয়ারিং কমিটির সভায় পক্ষকালব্যাপী সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারা দেশে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন পালন করার সিদ্ধান্ত নেন। চলতি মাসের ৫ জুন শুরু হয় ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর ক্যাম্পেইন। দেশব্যাপী ক্যাম্পেইনটি চলবে ১৯ জুন পর্যন্ত।

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা, সারাদেশ থেকে বিভাগীয় ও জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তারা জুমের মাধ্যমে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত ও শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় পুষ্টিসেবার লাইন ডাইরেক্টর ডা. এস এম মোস্তাফিজুর রহমান।

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় পুষ্টিসেবা থেকে জানানো হয়, দেশের সকল ইপিআই কেন্দ্র এবং স্থায়ী স্বাস্থ্যকেন্দ্রসমূহে প্রতিদিন ক্যাম্পেইন পরিচালিত হবে। নির্ধারিত ইপিআই সিডিউল অনুযায়ী প্রত্যেক ওয়ার্ডের (পুরাতন) ৮টি সাব-ব্লকে সপ্তাহের ছয়দিনের মধ্যে দুইদিন ইপিআই টিকাদান কর্মসূচির ব্যাঘাত না ঘটিয়ে অবশিষ্ট চার দিন নির্ধারিত ইপিআই কেন্দ্রে পর্যায়ক্রমে শিশুদের ভিটামিন ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। তাছাড়া কমিউনিটি ক্লিনিক ও অন্যান্য সরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

জাতীয় পুষ্টিসেবার পক্ষ থেকে বলা হয়, একই সঙ্গে কেন্দ্রে আগত শিশুদের পিতা-মাতা বা অভিভাবকদের পুষ্টি বিষয়ক বার্তা জানানো হবে। এবারের ক্যাম্পেইনে ভ্রাম্যমাণ টিকাকেন্দ্র থাকবে বলেও জানায় জাতীয় পুষ্টিসেবা। এছাড়া কোভিড-১৯ মহামারি প্রাদুর্ভাবের কারণে শারীরিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি সুনিশ্চিত করার বিষয়ে কাজ করবে বলেও উল্লেখ করা হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে বলা হয়, ক্যাম্পেইন কার্যক্রম বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রত্যয়ের অংশ হিসেবে ‘রিয়েল টাইম’ এ্যাপ-এর মাধ্যমে মনিটর করা হচ্ছে। অনলাইনে পাওয়া তথ্য থেকে জানা যায়, ক্যাম্পেইনের অষ্টম দিন অর্থাৎ গতকাল ১৩ জুন পর্যন্ত সারা দেশে ১ কোটি ২৪ লাখেরও বেশি শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, এবারের ক্যাম্পেইনে সারাদেশে মোট ২ কোটি ২০ লাখেরও বেশি শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়াসোর লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করার পরিকল্পনার কথা বলা হয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে।

ঢাকাটাইমস/১৩জুন/এসআর/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :