ক্লাবে পরীমনির ভাঙচুরের নতুন ভিডিও ফাঁস

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ জুন ২০২১, ১৪:০৭ | প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০২১, ১৩:০৯

গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে ঢুকে চিত্রনায়িকা পরীমনির ভাঙচুরের ঘটনার নতুন একটি ভিডিও ফাঁস করেছে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল। সিসিটিভির ফুটেজ থেকে সংগৃহিত ওই ভিডিওতে দেখা যায়, লম্বাদেহী ও সুদর্শন এক পুরুষসঙ্গীর হাত ধরে অল কমিউনিটি ক্লাবে ঢুকছেন অভিনেত্রী। রাত তখন ১টা ৩৯ মিনিট।

এরপর লিফটের সামনে দাঁড়িয়ে ওই পুরুষসঙ্গী এবং অন্য আরেক জন পুরুষ এবং নারীর সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায় পরীমনিকে। এরপর তিনি লিফটে ওঠেন। ভিডিওর পরের অংশে রয়েছে, লিফট থেকে বেরিয়ে নায়িকার সঙ্গে ওই তিনজনও বড় একটি কাঠের দরজা খুলে একটি কক্ষে ঢুকছেন।

এর পরের অংশে দেখা গেল, পর পর কয়েকটি গ্লাস ওই কক্ষের মেঝেতে আছড়ে পড়ছে। তবে সেই গ্লাসগুলো পরীমনি নাকি অন্য কেউ ছুঁড়ে ফেলছেন, ভিডিওতে তা দেখা যাচ্ছে না। এর পরই লিফট দিয়ে নেমে ক্লাব থেকে বেরিয়ে যান পরীমনি। তার সঙ্গে মুখে মাস্ক লাগিয়ে বেরিয়ে যান এক নারী ও পুরুষ। তবে যে পুরুষ সঙ্গীর সঙ্গে তিনি ক্লাবে ঢুকেছিলেন, তাকে বের হতে দেখা যায়নি।

ঘটনাটি গত ৮ জুনের। তবে ক্লাব কর্তৃপক্ষ পরীমনির বিরুদ্ধে ভাঙচুরের তোলেন বুধবার। এদিন সন্ধ্যায় ক্লাবটির সভাপতি কে এম আলমগীর ইকবাল সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনাটি প্রকাশ করেন। কিন্তু এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেছেন নায়িকা পরীমনি। এটাকে তিনি তার বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

বুধবার রাতে পরীমনি ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘এটা একটা ষড়যন্ত্র। এক সপ্তাহেরও বেশি সময় পর এই ঘটনা কেন সামনে আসল বুঝতে পারছি না। বোট ক্লাবে আমাকে যৌন হেনস্তা ও হত্যাচেষ্টার ঘটনা ধামাচাপা দিতে একটা মহল সুপরিকল্পিতভাবে এমন অভিযোগ তুলেছে, যেটা মোটেই সত্য নয়।’

এ ব্যাপারে ক্লাব কর্তৃপক্ষ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন কি না তা নিয়ে দেখা দিয়েছে ধোঁয়াশা। ঢাকাটাইমসের অনুসন্ধান ও পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ে কথা বলে জানা গেছে, ৮ জুনের ওই রাতে ক্লাবে পরীমনির অসদাচরণের সংবাদ তখন পুলিশকে জানানো হলে তারা সেখানে গিয়েছিলেন। পরে বিষয়টি পুলিশের তরফে লিপিবদ্ধ করা হয়।

এর আগে গত ৯ জুন গভীর রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমি নামে দুই ব্যবসায়ী পরীমনিকে মারধর ও যৌন হেনস্তা করেন অভিযোগ তোলেন তিনি। গত রবিবার রাতে অভিনেত্রী ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে এবং নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে এই খবর প্রকাশ করেন।

এর পরদিন সকালে সাভার মডেল থানায় বাদী হয়ে তিনি মামলাও করেন। যেহেতু ঘটনাটি সাভার ধানাধীন। ওইদিন দুপুরেই গ্রেপ্তার করা মামলার প্রধান আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমিসহ মোট পাঁচজনকে। বর্তমানে তারা প্রত্যেকে সাত দিনের রিমান্ডে রয়েছেন।

ঢাকাটাইমস/১৭জুন/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত