নির্যাতিত হয়ে ঘরছাড়া সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেলের পুত্রবধূ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ জুন ২০২১, ১৬:৫২

স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যদের দ্বারা নির্যাতিত হয়ে ঘর থেকে বিতাড়িত হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ.এফ. হাসান আরিফের পুত্রবধূ মাধুরী আক্তার নীলা ওরফে নীলা আরিফ। গত বুধবার আট দিন বয়সী শিশুসন্তানকে কোলে নিয়ে রাজধানীর নিউমার্কেট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নীলা। এতে আসামি করা হয়েছে হাসান আরিফের ছেলে মুয়াজ আরিফকে। সদ্যভূমিষ্ট সন্তানের অধিকার লাভের দাবিতে তিনি এই মামলা করেছেন বলে জানান।

এ বিষয়ে নিউমার্কেট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘নীলা বাদী হয়ে তার স্বামীকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।’

মামলার বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে নীলা আরিফ ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘আমি গত পরশু মামলা করেছি। এখনো কোনো অগ্রগতি নেই। মুয়াজ আরিফ বহাল তবিয়তেই আছেন।’

মামলা করার পরেও তাকে মুয়াজ আরিফ হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন দাবি করে নীলা বলেন, ‘আমি থানায় মামলা করতে গেছি, এই তথ্য তিনি সঙ্গে সঙ্গে পেয়ে গেছেন। এখন তিনি আমাকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন। এমনকি আমি যে মামলায় কারাগারে ছিলাম সেই মামলার জামিন বাতিল করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন। আমি এখন গ্রিন রোডের একটি সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্টে আছি। জামিন পেয়ে আমি শ্বশুরের বাসায় গিয়েছিলাম, কিন্তু তারা আমাকে বাসায় প্রবেশ করতে দেয়নি।’

নির্যাতনের শিকার হয়েও জেল খেটেছেন জানিয়ে নীলা বলেন, ‘আরিফ আমাকে নির্যাতন করতেন। আর এ নির্যাতনের বিষয়ে যেন মুখ খুলতে না পারি সে জন্য তারা আমার বিরুদ্ধে এটেম টু মাডারের অভিযোগে মামলা দেন। আমি যখন গ্রেপ্তার হই তখন নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এই অবস্থায় আমাকে জেলে যেতে হয়। এটি সম্পূর্ণ মিথ্যে মামলা। কারাগারে আমি এক মাস সাত দিন ছিলাম। এরমধ্যে কারাগারেই আমি সন্তান প্রসব করি।’

নীলা আরও বলেন, ‘আরিফ মাদকাসক্ত এবং বিভিন্ন নারীদের সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা করে। বিষয়গুলো আমার শ্বশুরের পরিবারকে জানিয়েছি। এমনকি আমি সংসার করবো না বলে তাদের সিদ্ধান্ত জানালে তারা নানাভাবে আমাকে ম্যানেজ করার চেষ্টা করেন। আরিফ বিবাহের পর থেকে বিভিন্ন সময়ে আমাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে। আমার দুই বছরের কন্যা সন্তানকে আটকে রেখে নির্যাতন করেছে। আমার আট দিন বয়সের দ্বিতীয় কন্যা সন্তান নিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। ইতিপূর্বে আমার পেটে লাথি মেরে তিন মাসের একটি বাচ্চা মেরে ফেলেছে। আমাকে ডিএমসি করতে হয়েছে। আমাকে নির্যাতন করে চুল কেটে দিয়েছে। আমার গাড়িসহ সমস্ত কিছু আটকে রেখেছে। আমার সিম মোবাইল ফোন ও ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে আমাকে ব্ল্যাকমেইল করছে এবং আমি এবং ও আমার দ্বিতীয় কন্যা সন্তানকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।’

স্বামীর মারধরের বিষয়টি তার শ্বশুরও জানতেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাকে মারধরের সময় আমার শ্বশুর ছেলেকে বলতেন, দেখো ফেটে যেন না যায়, কেটে যেন না যায়।’

বিয়ের পর নীলা জানতে পারেন তার স্বামী আরিফ অ্যালকোহল গ্রহণ করেন। এমনকি তিনি বিভিন্ন নারীর সঙ্গে মেলামেশা করেন। এসব ঘটনা তার শ্বশুরকে জানানোর পরেও রাষ্ট্রের সাবেক প্রধান আইন কর্মকর্তা কোনো পদক্ষেপ নেননি বলে অভিযোগ নীলার।

(ঢাকাটাইমস/১৮জুন/এআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

নারীমেলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :