নাতির কোলে দাদা এলেন ভোট দিতে

মাদারীপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ জুন ২০২১, ১৯:৩৬

‘আর বাঁচমু কি না, কে জানে? তাই তো নাতির কোলে করে ভোট দিতে আইলাম। আল্লাহ জানে এইটাই জীবনের শেষ ভোট কিনা!’ পঁচাত্তরোর্ধ্ব আব্দুর রহিম মিয়া মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নে একটি কেন্দ্রে ভোট দিতে এসে এসব কথা বলেন। তার নাতি সোহেল মিয়া দাদাকে কোলে করে ভোট কেন্দ্রে নিয়ে আসেন।

স্থানীয়রা জানান, শিবচর উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সোনামিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুর দেড়টার দিকে ভোট কেন্দ্রে আসেন আব্দুর রহিম মিয়া। বয়সের ভারে নুয়ে পড়ায় তাকে কোলে করে কেন্দ্রে নিয়ে আসেন তার নাতি সোহেল। এ সময় ভোট কেন্দ্রে দায়িত্বরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বৃদ্ধাকে ভোট দিতে সহযোগিতা করেন।

ওই কেন্দ্রে ইভিএম থাকায় প্রথমে ভোট দিতে একটু কষ্ট হয়, পরে অবশ্য ভোট দিতে পারায় চোখে-মুখে আনন্দ ফুঁটে উঠে। ভোট দিয়ে আবার নাতির কোলে বাড়ি চলে যান তিনি।

রহিম মিয়া বলেন, ‘হাঁটতে-চলতে পারি না, কিভাবে ভোট দিতে আমু। পরে নাতি কোলে করে নিয়ে আসে। মিশিন দিয়ে এবার প্রথম ভোট দিলাম। আর পারমু কিনা জানি না। অনেক ভোট দিছি জীবনে, এবারের মতো শান্তি নিয়ে আর ভোট দিতে পারি নাই।’

কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা শ্যামল কৃষ্ণ মালাকার বলেন, ‘ভোটাররা স্বাভাবিকভাবে শান্তিপূর্ণ ভোট দিয়েছে। তবে কয়েকজন বৃদ্ধ হওয়ায় তাদের সহযোগিতা করেছে কেউ কেউ। এটা দোষের কিছু না। বেশ কয়েকজন বৃদ্ধাকে কোলে করে ভোট কেন্দ্রে এনে ভোট দিতে হয়েছে। এছাড়া ইভিএমে সহজ ও সুন্দর করে যাত্রীরা ভোট দিয়েছে।’

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান জানান, ‘কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোনো রকম ঝামেলা হয়নি। জাল ভোট দেয়ার ঘটনায় দুই-তিনজনকে আটক করলেও ভোট গ্রহণ শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়নের একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেছেন। পুলিশ বিভাগও কঠোর দায়িত্ব পালন করেছেন।’

(ঢাকাটাইমস/২১জুন/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :