ঢাবির বাজেটে গবেষণায় সর্বনিম্ন বরাদ্দ

ঢাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০২১, ২১:৩৫

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে গবেষণা মঞ্জুরি খাতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে সবচেয়ে কম। বাজেটে এবার ১.৩২ ভাগ বরাদ্দ দেয়া হয় গবেষণায়৷ যদিও গতবারের তুলনায় এই খাতে বাড়ানো হয়েছে বরাদ্দ।

বৃহস্পতিবার বিকাল তিনটায় নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এ বাজেট উত্থাপন করেন। প্রস্তাবিত বাজেট সিনেটে অনুমোদন দেয়া হয়।

এর আগে ২১ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী সভা সিন্ডিকেটে বাজেটটি অনুমোদন পায়। ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে গবেষণা মঞ্জুরি খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে মোট ১১ কোটি টাকা, যা মোট বাজেটের ১.৩২ শতাংশ।

বাজেটে বেতন, ভাতা ও পেনশন বাবদ ৬১১ কোটি ৮৯ লাখ ৬৫ হাজার টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে, যা মোট ব্যয়ের ৭৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ। অন্যান্য অনুদান বাবদ ১৯ কোটি ১২ লক্ষ টাকা, যা প্রস্তাবিত ব্যয়ের ২.৩০ শতাংশ। পণ্য ও সেবা বাবদ ১৬৮ কোটি আট লাখ ৩৫ হাজার টাকা, যা মোট ব্যয়ের ২০.২০ শতাংশ এবং মূলধন খাতে ২১ কোটি ৬৯ লাখ টাকা, যা মোট ব্যয়ের ২.৬১ শতাংশ বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

২০২১-২২ অর্থবছরে বিশ্ববিদ্যালয় দুটি উৎস থেকে আয় করবে। তন্মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (বিমক) থেকে পাওয়া যাবে ৬৯৬ কোটি ৫৪ লাখ টাকা যা মোট বাজেটের ৮৩.৭৪ ভাগ। তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব খাত থেকে আয় ধরা হয়েছে ৬৫ কোটি টাকা যা মোট বাজেটের ৭.৮১ শতাংশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব সর্বোচ্চ আয়ের খাত হলো ভর্তি ফর্ম বিক্রি যেখান থেকে আয় ধরা হয়েছে ২৯ কোটি সাত লাখ টাকা। শিক্ষার্থিদের থেকে ফি বাবদ আয় ধরা হয়েছে ১৫ কোটি ৩০ লাখ টাকা, বেতন ভাতাদি থেকে কর্তন বাবদ ধরা হয়েছে আট কোটি ৫১ লাখ টাকা, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব সম্পত্তি থেকে আয় ধরা হয়েছে দুই কোটি ২৫ লাখ টাকা। এছাড়াও বিবিধ খাত থেকে আয় ধরা হয়েছে নয় কোটি ৭৮ লক্ষ টাকা।

আয় ব্যয়ের হিসেবে নতুন অর্থবছরের ঘাটতির পরিমাণ দাড়াবে ৭০ কোটি ২৫ লাখ টাকা যা প্রাক্কলিত ব্যয়ের ৮.৪৫ শতাংশ।

(ঢাকাটাইমস/২৪জুন/আরএল/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত