'আমাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তুলে নিয়ে যায়নি'

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ০৮:৫৮ | প্রকাশিত : ২৯ জুলাই ২০২১, ০০:৩২

এক দিনে তিন ডোজ করোনা ভ্যাকসিন নেয়া নারায়ণগঞ্জের যুবক ওমর ফারুককে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন ওমর ফারুক নিজেই।

বুধবার রাতে ফারুকের সঙ্গে ঢাকাটাইমস প্রতিবেদকের কথা হয়। তিনি জানান, অপহরণের বিষয়টি সঠিক নয়। তিনি সুস্থ আছেন, ভালো আছেন। চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে কোথা থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন তা জানাননি।

একই দিন ওমর ফারুককে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়। এমনকি ছেলের সন্ধান চেয়ে থানায়ও যায় পরিবারটি।

সৌদি আরবে যাওয়ার আগে করোনা প্রতিরোধী টিকা নিতে সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা ওমর ফারুক। তবে না বুঝেই তিনটি বুথ থেকে তিন ডোজ টিকা নেন তিনি। এরপর একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে বলেন, ‘আমি যখন প্রথমে টিকাকেন্দ্র ঢুকলাম, তখন এক জন ইশারা দিয়ে ডান সাইটে যেতে বললেন। ওখানে গিয়ে এক ডোজ টিকা নিলাম। টিকা দিয়ে উনি সামনের দিকে যেতে বললেন। সামনের ব্যক্তি দ্বিতীয়বার টিকা দিয়ে বললেন, আপনি সামনে যান। আরও সামনের দিকে এগিয়ে গিয়ে একটি চেয়ারে বসলাম। উনি কিছু জিজ্ঞেস না করে আরও এক ডোজ টিকা আমাকে দিয়েছেন। পরে বাইরে এসে লোকদের জিজ্ঞেস করলাম আপনারা কয়বার টিকা দিয়েছেন, তারা বললেন, একবার।’

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়।

ওমর ফারুক বলেন, তিনি এখন সুস্থ আছেন, ভালো আছেন। টিকা নেওয়ার পর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখনো হয়নি।

তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'এটা মিথ্যা। এমন কোনো কিছু হয়নি।'

তিনি বিশ্রাম নিচ্ছেন জানিয়ে বলেন, 'কিছু মনে করবেন না, আমি একটু বিশ্রাম নিচ্ছি। পরে কথা বলব।'

এদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘ওমর ফারুক সুস্থ আছেন এবং তিনি সাত দিন পর্যবেক্ষণে থাকবেন।’

তিনবার টিকা দেবার বিষয়টি তিনি এক বার স্বীকার করেন। পরক্ষণে অস্বীকার করেন। তিনি মনে করেন, সরকারের এই মহতি উদ্যোগকে কেউ ভিন্ন দিকে নিতে এসব করছে।

হাসপাতালের অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, তার (ওমর ফারুক) হাতে তিনটি টিকা নেওয়ার দাগ মিলেছে। ভুল করেই তাকে এই টিকা দেওয়া হয়েছিল। তবে, এখন থেকে টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে তাদেরকে আরও বেশি সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া তিন ডোজ টিকা নেওয়া ওমর ফারুককে বর্তমানে হাসপাতাল থেকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বাড়তি টিকা নেওয়ার কারণে তার কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখনো দেখা দেয়নি। তবে তিন ডোজ টিকা নেওয়ার কোনো নিয়ম নেই, বলছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী, করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষার জন্য এক জনকে দুই ডোজ টিকা দিতে হবে। প্রথম ডোজ নেওয়ার চার সপ্তাহ বা আট সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ নিতে হয়। সাধারণত টিকা দেওয়ার পর টিকা কার্ডে সেটি উল্লেখ করতে হয়। নিয়ম অনুযায়ী টিকা নেওয়ার পর প্রত্যেক ব্যক্তিকে ৩০ মিনিট পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এমনকি টিকা নেওয়া ব্যক্তির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখার জন্য একজন চিকিৎসকের নম্বর দেওয়া হয় টিকা কার্ডে। কোনো ধরনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে মোবাইল ফোনে জানানোর পরামর্শ রয়েছে কর্তৃপক্ষের।

(ঢাকাটাইমস/২৯জুলাই/এসএস/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :