সুইজারল্যান্ড আ.লীগের জাতীয় শোক দিবস পালন

ইউরোপ ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ আগস্ট ২০২১, ২১:০৩

শোক ও গভীর শ্রদ্ধায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী জাতীয় শোক দিবস ও গ্রেনেড হামলায় শহীদদের স্মরণে দিবসটি পালন করেছে সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

গত রবিবার জেনেভার ঐতিহ্যবাহী কমিউনিটি হল মহাত্মা গান্ধী-তে সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খানের সঞ্চালনায় শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন- জেনেভাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মোস্তাফিজুর রহমান।

আরো ছিলেন- সাবেক সভাপতি হারুন অর রশিদ বেপারী এবং উপদেষ্টা ও সাবেক নির্বাচন কমিশনার ইমরান খান মুরাদ।

জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শোক সভার শুরু করেন উপস্থিত নেতাকর্মী ও অতিথিরা। এরপর পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত করেন সাবেক সভাপতি হারুন অর রশিদ বেপারী, গিতা পাঠ করেন উপদেষ্টা আশোক কুমার সরকার রবি, ত্রিপিটক পাঠ করেন সহভাপতি অরুন য্যোতি বরুয়া।

শোক দিবসের আলোচনা সভায় অংশ নেন- সহসভাপতি স্বপন হালদার, জাহানারা বাশার, সহ সভাপতি মোবারক আলী, আনিস হোসাইন ও মোর্শেদ গোলাম, মুক্তিযুদ্ধ বিশেষজ্ঞ, ব্লগার ও সাংবাদিক অমি রহমান পিয়াল, সিনিয়র আওয়ামী নেতা ও উপদেষ্টা আব্দুর রব, উপদেষ্টা ও ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি সুইজারল্যান্ডের সভাপতি খলিলুর রহমান মামুন, সিনিয়র আওয়ামী নেতা ও জেনেভা বাংলাদেশ ক্লাবের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম জমাদার, সিনিয়র আওয়ামী নেতা ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান, আওয়ামী যুবলীগ সুইজারল্যান্ডের সভাপতি জুয়েল মল্লিক, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক গৌরি চরন সসীম, আকন আজাদ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুম খান দুলাল।

আলোচনায় প্রায় সকলেই জাতির পিতার আত্মস্বীকৃত খুনিদের পেছনে থাকা পরিকল্পনাকারী ও সুবিধাভোগকারী সকলকে আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানান। সেইসঙ্গে বিদেশে পলাতক সাজা প্রাপ্তদের অতি দ্রুত দেশে এনে সাজা কার্যকর করার দাবিও জানান আলোচকরা।

জেনেভা এবং সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন শহর থেকে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী ও তাদের পরিবারবর্গ এই মহতি আয়োজনে অংশ নেন।

আয়োজন ও আপ্যায়নে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন- উপদেষ্টা মোহাম্মদ মহসিন, সহসভাপতি মশিউর রহমান সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক আকবর আলী, জেনেভা বাংলাদেশ ক্লাবের সাবেক সভাপতি আশরাফুল ইসলাম আজাদ, শ্রমিক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কল্যাণ পাল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নিজাম উদ্দীন, বেলাল চৌধুরী, আইয়ান জুনায়েদসহ আরো অনেকে।

সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খান জিয়াউর রহমান ও খন্দকার মোস্তাক আহমেদের মরণোত্তর বিচারের দাবি জানিয়ে এবং উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে শোক সভার সমাপনী ঘোষণা করেন।

(ঢাকাটাইমস/২৩আগস্ট/পিএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

প্রবাসের খবর এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :