নিজেকে জনগণের চাকর মনে করি: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জামালপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৩৮

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, আমার নির্বাচনী এলাকার ভোটার আমার মনিব, আমি তাদের চাকর, সেবক। তিনি বলেন, আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিশেষজ্ঞ ডিগ্রি অর্জন করেছি আপনাদের সেবা করার জন্য। আপনাদের সেবা করতে চাই চাকর হিসেবে। এটা আমার দায়িত্ব, এর বাইরে আমার কোনো দায়িত্ব নাই। আমি জীবন দিয়ে প্রমাণ করতে চাই আমি কত ভালো কর্মী, নেতা হতে চাই না। আমি আপনাদের চাকর হয়ে বেঁচে থাকতে চাই। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে, বঙ্গবন্ধু চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার জন্য জীবন বিলিয়ে দিতে পারবো।’

শুক্রবার সরিষাবাড়ী উপজেলার আওনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মুরাদ হাসান বলেন, ‘এই বাংলাদেশ রক্ত দিয়ে কেনা বাংলাদেশ। আমার এই বাংলাদেশ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বাংলাদেশ, এই বাংলাদেশ ত্রিশ লাখ বীর বাঙালি রক্ত দিয়ে কেনা, বাংলাদেশ কারো দয়ার দান না। এই বাংলাদেশ কেউ আমাদের ভিক্ষা দেয় নাই, রক্ত দিয়ে, জীবন দিয়ে, লক্ষ মানুষের রক্তের বিনিময়ে আমার পিতা, আমার পূর্বপুরুষের এক সাগর রক্তের বিনিময়ে কেনা বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশ ওই খুনি জিয়াউর রহমানের বাংলাদেশ নয়, এই বাংলাদেশ ওই বেগম জিয়া, খুনি রাজাকারের বাংলাদেশ নয়। এই বাংলাদেশ ওই একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার খলনায়ক কুলাঙ্গার বেজন্মার তারেক রহমানের নয়।’

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এই মাটি মুক্তিযোদ্ধাদের মাটি, যে মাটি আমার পূর্বপুরুষের পিতা আমার দাদার। যে মাটি আমার বীর বাঙালির মাটি, এই বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে একটি শপথ উচ্চারণ করতে চাই, আপনারা আমার সাথে আজকে শপথ উচ্চারণ করবেন, ‘আমি আপনাদের সন্তান আমি খুনি জিয়ার মরণোত্তর বিচার বাংলার মাটিতেই করব’ এই শপথ। বেগম জিয়ার বিচার আর তারেক রহমানের বিচার বাংলার মাটিতেই করবো আমরা।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ওই চন্দ্রিমা উদ্যান থেকে ওই খুনির জিয়া নামের কবর মাজার, জিয়াউর রহমান কি পীর দরবেশ আউলিয়া? ও একটা খুনি ও পাকিস্তানি দালাল, পাকিস্তানের গুপ্তঘাতক, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে প্রধান কুশীলব, বঙ্গবন্ধুর হত্যার পরিকল্পনার মাস্টারমাইন্ড এবং বঙ্গবন্ধু হত্যার বাস্তবায়নকারী। খুনি জিয়ার মুখোশ উন্মোচন করবোই করবো এই আমাদের শপথ, এই আমাদের অঙ্গীকার জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।’

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহামানের ছবি উপস্থিত নেতাকর্মী জনগণের মধ্যে বিতরণ করেন এবং বলেন, বঙ্গবন্ধুকে যারা দেখেছেন তারা সৌভাগ্যবান, যারা দেখি নাই বা দেখে নাই সেই ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য প্রতি ঘরে ঘরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর এর ছবি রাখা উচিত বলে মন্তব্য করেন ডা. মুরাদ হাসান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা উন্নয়নের মহাসড়কে হাঁটছি, আমাদের যেতে হবে সমৃদ্ধির সর্বোচ্চ শিখরে। বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বে মুক্তিকামী মানুষের জন্য এক অনন্য ইতিহাস। একটি ছবি যখন অনুপ্রাণিত করে, সেই ছবি আমাদের দৃষ্টিতে থাকা উচিত।’ কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নয়, নিজেকে আদর্শবান ও নৈতিকতায় বলীয়ান করে অন্যায়ের প্রতিবাদী হতে সাহস যোগাবেও বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশা, সহসভাপতি মাহবুবুর রহমান হেলাল, সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১৭সেপ্টেম্বর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

বগুড়ায় ট্রাকচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

পা দিয়ে ছবি এঁকে দ্বিতীয় স্থান অর্জন মোনায়েমের

‘মান ঠিক রেখে প্রকল্প শেষ করতে কাজ করছে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়’

খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপির ময়মনসিংহ বিভাগীয় সমাবেশ

‍কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা মামলার আসামি রকিকে নির্দোষ দাবি পরিবারের

লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের টাকা আত্মসাৎ: তিন নেতার বিরুদ্ধে মামলা

বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে কিশোরগঞ্জে প্রস্তুতি সভা

রূপপর পরমাণু কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটে বসলো পোলার ক্রেন ব্রিজ

ঠাকুরগাঁওয়ে নির্বাচনী সহিংসতার মামলায় আসামি ৭০০

যশোর শিক্ষাবোর্ডে চেক জালিয়াতিতে জড়িতদের গ্রেপ্তারে আলটিমেটাম

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :