‘অপরাজিত সত্যজিৎ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচনে সন্দীপ রায়

সাহিত্য প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০১ | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০

ভারতের কলকাতার বিশফ লেফ্রয় রোডে সত্যজিৎ রায়ের বাড়িতে সম্প্রতি মোড়ক উন্মোচিত হল ‘অপরাজিত সত্যজিৎ’।

বইটি উদ্বোধন করে সত্যজিৎ-পুত্র সন্দীপ রায় বলেন, ‘ভালো প্রোডাকশন, খুব ভালো হয়েছে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম এইরকম একটা প্রশংসনীয় কাজ করল। উনি এমন একজন মানুষ, যেটা একটা বইয়ে কভার করা খুব মুশকিল। তাই এই বইয়ের দ্বিতীয় খণ্ড হতেই পারে।

'পথের পাঁচালী'-এর মুক্তির দিনটিকে স্মরণ করে এই বইটি প্রকাশিত হয়েছিল ২৬ আগস্ট। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মানস কুমার সান্যাল বলেন, ‘রায় বাড়িতে সন্দীপবাবুর হাত দিয়ে বইটি উদ্বোধন হওয়ায় সত্যজিৎ অনুরাগীদের কাছে একটি নতুন বার্তা গেল। সত্যজিতের যারা কাছের মানুষ দেশ বিদেশে ছড়িয়ে আছেন বা যাঁরা সত্যজিৎ চর্চা করছেন এইরকম গুণীজনদের লেখা নিয়ে আমরা এই বইটির দ্বিতীয় খণ্ড প্রকাশ করব।’

জার্নালিজম অ্যান্ড মাস কমিউনিকেশনের ইন-চার্জ অধ্যাপক সুখেন বিশ্বাস জানান, ‘ইতিমধ্যেই বইপাড়ায় বইটি সমাদর পেয়েছে। দেশ ও বিদেশের (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, কানাডা, ইংল্যান্ড, জার্মানি, জাপান, বাংলাদেশ ও ভারত) পঞ্চান্ন জন লেখক লিখেছেন। পুনমুদ্রিত কোনও লেখা এই বইয়ে নেই।’

লেখকদের মধ্যে রয়েছেন— এম. জে. আকবর, সুবীর বন্দ্যোপাধ্যায়, লিলি চক্রবর্তী, বারিদবরন ঘোষ, পৌলমী চট্টোপাধ্যায়, প্রমুখ। এবং ববিতা সহ বাংলাদেশের পাঁচ জন লেখক। এরা হলেন পিয়াস মজিদ, রাজীব মন্দী, হিল্লোল দত্ত ও সাহাবউদ্দিন বাদল।

বইটি মোড়ক উন্মোচন করে সন্দীপ বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষেরা ওকে খুবই শ্রদ্ধা করে। ওখানকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রতিষ্ঠানে ওকে নিয়ে জোর গবেষণা চলছে।’

কবি পিয়াস মজিদের লেখায়, বাংলাদেশের সত্যজিৎ চর্চার বিষয়টি খুব সুন্দর ভাবে ধরা পড়েছে। অভিনেত্রী ববিতা তো সত্যজিৎকে নিয়ে অনেক অজানা স্মৃতিকথা লিখেছেন। অধ্যাপক রাজীব নন্দীর লেখায়, সত্যজিতের ছবিতে মা চরিত্রের প্রয়োগ নিয়ে অসাধারণ লিখেছেন। হিল্লোল দত্ত লেখায় এসেছে সত্যজিতের ছবি এবং সাহিত্যে পাখির ব্যবহার। আর অধ্যাপক সাহাবুদ্দিন বাদল মসুয়ায় সত্যজিৎ পূর্বপুরুষের বাড়িটিকে আখ্যাত করেছেন জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়ি হিসেবে।

(ঢাকাটাইমস/২২সেপ্টেম্বর/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :