গুলশান ও বারিধারায় গাড়ি চালাতে দিতে হবে বাড়তি চার্জ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১০ | প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২০

রাজধানীর গুলশান ও বারিধারার মতো অভিজাত এলাকায় গাড়ি চলাচল করতে বাড়তি চার্জ দিতে হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

শনিবার সকালে রাজধানীর মালিবাগ-খিলগাঁও এলাকায় ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ-ডিটিসিএ কর্তৃক বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত ওয়াকাথন অনুষ্ঠানে একথা জানান তিনি।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, এবার দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য বিষয় ‘গণপরিবহনে ও হেঁটে চলি, ব্যক্তিগত গাড়ি সীমিত করি’ যা সময়োপযোগী ও অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

ব্যক্তিগত গাড়ির ব্যবহার কমিয়ে গণপরিবহন ব্যবহার করে যানজট এবং বায়ুদূষণ কমানো সম্ভব জানিয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, নগরীতে বড় বড় ফুটপাত নির্মাণ করা হলেও বিভিন্ন কায়দায় সেগুলো দখল হয়ে যায়, আর ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে না পেরে জনগণকে রাস্তা দিয়ে হাঁটতে হয় ফলে যানজট বৃদ্ধি পায়।

আতিকুল ইসলাম বলেন, বিদেশে আমরা দেখেছি যত গাড়ি রয়েছে তাদেরও কিন্তু বিভিন্ন রাস্তায় ঢুকলে বাড়তি চার্জ দিতে হয়। তাই আমরাও প্ল্যান করেছি গুলশান, বারিধারাসহ অভিজাত এলাকাগুলোয় গাড়ি ঢুকলে বাড়তি চার্জ দিতে হবে। আমরা এসব অভিজাত এলাকায় মেশিন বসিয়ে প্রথমে গাড়ি গণনা করব। দেখব কতগুলো গাড়ি প্রবেশ করে, এরপর একটি সমীক্ষা করে বিষয়টি আমরা কার্যকর করব। তখন অভিজাত এলাকায় গাড়ি চলার সময় বাড়তি চার্জ ধরা হবে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, সুস্থতার জন্য লোকজন যাতে নির্দিষ্ট জায়গায় সাইকেল চালাতে পারে এবং ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে পারে সেজন্য সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টা প্রয়োজন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, মেয়র কিংবা কাউন্সিলর কারও একার পক্ষেই শহরকে রক্ষা করা সম্ভব নয়, দলমত নির্বিশেষে সকলকে জনকল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, সবাই মিলে অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে এবং অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে হবে, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় রাস্তা ও ফুটপাত দখলমুক্ত করতেই হবে।

নির্দিষ্ট সময়ের জন্য চাঁদামুক্তভাবে ফুটপাতে ব্যবসার পরিবেশ সৃষ্টির পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সবাই মিলে দখল, দূষণ ও দুষ্ট লোকের কবল থেকে ঢাকাকে মুক্ত করে একটি সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকা গড়ে তুলতে হবে।

রুট পারমিট এবং ফিটনেসবিহীন কোন গাড়ি রাস্তায় চলাচল করতে পারবে না বলেও জানান ঢাকা উত্তরের মেয়র।

বক্তব্য শেষে মেয়র পদযাত্রার শুভ উদ্বোধন করেন। মালিবাগ বাজার থেকে খিলগাঁও তালতলা সুপার মার্কেট পর্যন্ত মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে পদযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়াকাথন অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক, ডিটিসিএর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান এবং স্থানীয় কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/২৫সেপ্টেম্বর/বিইউ/এমআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :