সাম্প্রদায়িক হামলা বিএনপির ইন্ধনে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৮ | প্রকাশিত : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৩

গণতন্ত্র ধ্বংস করতে বিএনপির ইন্ধনে সারাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পরাজিত করতে হবে এমন মন্তব্য করে তিনি সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে সোমবার সকালে তাঁর কবরে দলীয় নেতাদের নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা জানান নেতারা।

সেতুমন্ত্রী বলেন, গত ১২ বছরে দুর্গাপূজার হাজার হাজার মণ্ডপে কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। অথচ এবার পরিকল্পিতভাবে এই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী বিএনপির পৃষ্ঠপোষকতায় সারা দেশে তাণ্ডব চালিয়েছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গতকাল রাতে পীরগঞ্জের একটি জেলেপাড়ায় আগুন দিয়েছে, মন্দিরে হামলা হয়েছে। গবাদিপশু পর্যন্ত সেখানে প্রাণহানি হয়েছে। এরকম নৃশংসতম হত্যাযজ্ঞ তারা চালিয়ে যাচ্ছে। আগুন দিয়ে যাচ্ছে। ফেসবুকে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। সেই অপপ্রচার থেকেই রংপুরের ঘটনা উদ্ভব। কাজেই আমাদের সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাল রাত থেকে খোঁজখবর নিচ্ছেন। সেখানকার প্রশাসন ও আমাদের সঙ্গেও তিনি যোগাযোগ করেছেন। পার্টি পর্যায়েও আমাদেরকে সতর্ক পাহারায় থাকতে হবে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বাঁচাতে হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, পঁচাত্তর সাল থেকে এই দেশে হত্যা, ষড়যন্ত্র এবং সাম্প্রদায়িক রাজনীতির যে ধারা তার উত্তরাধিকার এখনও বয়ে চলেছে বিএনপি। এই হত্যা, ষড়যন্ত্র ও সাম্প্রদায়িক রাজনীতির কারণে বহুকষ্টে অর্জিত দেশের গণতন্ত্র বারবার ব্যাহত হচ্ছে।

‘বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অর্জন এবং মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে যে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বিষবৃক্ষ যে ডালপালা গজিয়েছে, এই বিষবৃক্ষের ডালপালাসহ সবকিছু উপড়ে ফেলাই হোক শেখ রাসেলের জন্মদিনের শপথ।’-বলেন কাদের

সরকার নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে মন্দিরে হামলা করছে বিএনপির এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কাদের বলেন, বিএনপিতো তাদের নেতাকর্মীদের মন্দিরের নিরাপত্তা ও পাহারা দেওয়ার জন্য বলেছে। কোথায় পাহারা দিয়েছে? ওদেরকে পাহারা দিতে দেওয়া মানে হলো শিয়ালের কাছে মুরগি বর্গা দেওয়া।

সম্প্রতি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য সাঈদ খোকন বাহাত্তরের সংবিধানের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে দলগতভাবে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, এসব বিষয়ে বিচ্ছিন্নভাবে কেউ যদি বলে থাকে এটা আমাদের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক আছে। সেখানে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো। দলের অভ্যন্তরে থেকে, দলের আদর্শ বিরোধী কেউ যদি বক্তব্য দেয়, আচরণ করে তাহলে অবশ্য সে শাস্তিযোগ্য হবে।

বনানী কবরস্থানে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মতিয়া চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, মাহবুবউল আলম হানিফ, দীপু মনি, হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আহমদ হোসেন, বিএম মোজ্জামেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, আফজাল হোসেন, আবদুস সোবহান গোলাপ, অসীম কুমার উকিল, আব্দুস সবুর প্রমুখ। পরে কবরস্থান মসজিদে দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন কাদের।

ঢাকাটাইমস/১৮অক্টোবর/টিএ/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :