আদি বুড়িগঙ্গায় বহুতল ভবন, গুঁড়িয়ে দিল বিআইডব্লিউটিএ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫১

দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে বেদখলে ছিল আদি বুড়িগঙ্গা। নদীর জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে বহুতল ভবন। নির্মাণ করা হয়েছে আবাসিক স্থাপনা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। নদী উদ্ধারে অভিযানে নেমে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

রবিবার আদি বুড়িগঙ্গা উদ্ধারে সংস্থাটির অভিযানের প্রথম দিনে নদীর দুই একর জায়গা উদ্ধার হয়েছে।

সকাল ১০টায় কামরাঙ্গীর চরের কালুনগর মৌজার মাহাদীনগরে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে বিআইডব্লিউটিএ। শুরুতেই কয়েকটি টিনের ঘর গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। ঘরগুলো নদীর জায়গা দখল করে নির্মাণ করা হয়েছিল। এরপর আদি বুড়িগঙ্গার সীমানা ধরে এগিয়ে যায় সংস্থাটি। নদীর জায়গায় দেখা যায় বহুতল ভবন। একে একে এসব ভবন গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

দিনভর অভিযানে মোট ৩১টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বিআইডব্লিউটিএ। এর মধ্যে দুটি দোতলা ভবন, দুটি একতলা ভবন, একটি আধা পাকা ভবন, সাতটি দিনের ঘর, সাড়ে তিন হাজার বর্গফুট পাকা প্রাচীর ভেঙে দেওয়া হয়। এছাড়া দুটি বাঁশের বেড়া ও দুটি জায়গার ভরাট অপসারণ করা হয়।

সব মিলিয়ে দুই একর জায়গা উদ্ধার হয়েছে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ।

উচ্ছেদের বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক ও ঢাকা নদীবন্দর কর্মকর্তা গুলজার আলী জানান, হাইকোর্টের আদেশ অনুযায়ী কামরাঙ্গীরচর থানার কালুনগর মৌজায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। মূলত আদি বুড়িগঙ্গা জেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণাধীন। অভিযানে বিআইডব্লিউটিএ’র সঙ্গে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটও অংশ নিয়েছেন।

আগামীকাল সোমবার দিনভর একই এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান চালাবে ঢাকা নদীবন্দর কর্তৃপক্ষ। এসব জায়গায় নদীর চার তলা ভবনও রয়েছে। এছাড়া দোকানপাট, এক-দুই তলা পাকা ভবনও রয়েছে। আদি বুড়িগঙ্গা দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে একাধিক মসজিদ।

এর আগে ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি ঢাকার চার নদী উদ্ধারে অভিযানে নামে বিআইডব্লিউটিএ। বছরব্যাপী অভিযানে সাড়ে সাত হাজারের বেশি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। উচ্ছেদকৃত জায়গায় ওয়াকওয়ে, বৃক্ষরোপনসহ বেশ কিছু উন্নয়ন প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। এরইমধ্যে তুরাগ নদের তীরভূমিতে সেই ওয়াকওয়ে দৃশ্যমান হয়েছে। আগামী মাসের শুরুর দিকে বুড়িগঙ্গা নদীর কামরাঙ্গীর চর অংশ থেকেও ওয়াকওয়ে নির্মাণ কাজ শুরু হচ্ছে।

আদি বুড়িগঙ্গা নিয়ে বড় ধরনের উন্নয়ন প্রকল্প নিতে চায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। চলতি অর্থবছরের শুরুতে আদি বুড়িগঙ্গা উদ্ধারে ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয় নগর কর্তৃপক্ষ। ব্যবসানির্ভর কামরাঙ্গীরচরের চিত্র পাল্টে দিতে বড় প্রকল্প নিতে চায় ডিএসসিসি।

(ঢাকাটাইমস/২৪অক্টোবর/কারই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :