মানুষকে আটকে রেখে চাঁদা আদায়, র‌্যাবের হাতে ছয়জন ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ নভেম্বর ২০২১, ১৬:৩৬

মানুষকে আটকে রেখে দীর্ঘদিন ধরে টাকা আদায় করে আসছিল একটি চক্র। এভাবে অনেক টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রটি। গতকাল রাতে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চক্রটির ছয় সদস্যকে আটক করে র‌্যাব-৪। এরপর তাদের অপরাধের বিষয়টি জানতে পারে এলিট ফোর্সটি।

গতকাল রাতে অভিযানের সময় ছয় চাঁদাবাজকে আটকের পাশাপাশি দুই ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে র‌্যাব। আটকের সময় ছয়জনের কাছ থেকে নগদ ৪৮ হাজার ৪০৫ টাকা, ছয়টি মোবাইল, দুইটি চেকের পাতা, দুইটি পরিচয়পত্রও উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলেন-মো. আজিজুল হক রাজু, মো. নজরুল ইসলাম, মো. অমিত মোল্লা, মো. শাকিল মাহমুদ, মো. হাসান, মোছা. শিল্পী আক্তার।

মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-৪ এর সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সোমবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে র‌্যাব-৪ এর একটি দল রামপুরা এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানে দুই ভুক্তভোগীসহ ছয় চাঁদাবাজকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৪৮ হাজার ৪০৫ টাকা, ছয়টি মোবাইল, দুইটি চেকের পাতা, দুইটি পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতদের বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা দীর্ঘদিন ধরে পরষ্পর যোগসাজশে চাঁদাবাজি করে আসছিল।

উদ্ধার হওয়া দুই ভুক্তভোগীদের বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, গত ৩ নভেম্বর দুইজন চাকরির খোঁজে ঢাকায় আসেন। গত ১০ নভেম্বর হাতিরঝিল এলাকায় তাদের সঙ্গে চাঁদাবাজদের পরিচয় হয়। একপর্যায়ে একটি মেস থেকে দুইজনকে টানাহেঁচড়া করে রামপুরার একটি বাসায় আটকে রাখা হয়। সেখানে তাদের কাছ থেকে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। টাকা না দিলে নারী পাচারকারী বলেন চালিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এ সময় তাদের মারধরও করা হয়।

ভয়ে দুইজন চাঁদাবাজদের কথামতো বাড়ির লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগ করে ৪৩ হাজার টাকার ব্যবস্থা করেন। এভাবে মানুষকে আটকে রেখে চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে বিপুল টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে জানতে পেরেছে র‌্যাব।

ঢাকাটাইমস/১৬নভেম্বর/এএ/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :