রোনালদো-স্যানচোতে নকআউট পর্বে ইউনাইটেড

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৪ নভেম্বর ২০২১, ১০:৫৩ | প্রকাশিত : ২৪ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৫

গত কিছুদিন মোটেই ভালো কাটেনি ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের। আর না কাটাই কি স্বাভাবিক না! ওয়াটফোর্ডের কাছে হার, কোচের চাকরি যাওয়া, নতুন এবং অস্থায়ী কোচ আসা। এরপর আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে ওঠার চিন্তা। তবে সবটাই উড়িয়ে দিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা। অস্থায়ী কোচ মাইকেল ক্যারিকের অধীনে যেখানে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে স্রেফ ড্র করলেই চলতো সেখানে ম্যানইউ জিতল দাপুটে ভঙ্গিতে।

মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়ালের মাঠে ২-০ গোলে জিতেছে ইউনাইটেড। শুরুর চাপের পর রোনালদোর গোলে ম্যাচে ফিরে সফরকারীরা পরে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জেডন স্যানচো। আর তাতেই ভিয়ারিয়ালকে হতাশায় ডুবিয়ে লিগের নকআউট পর্ব নিশ্চিত করে ইংলিশ ক্লাবটি।

প্রতিপক্ষের মাঠে এদিন শুরু থেকেই ব্যাকফুটে ছিলো ম্যান ইউ। বল দখলের লড়াইয়েও তারা ছিলেন পিছিয়ে। ৪৮ শতাংশ বল দখলে রেখে ম্যান ইউ গোলে শট করেছে ৮টি, লক্ষ্যে ছিলো ৬টি। গোল হয়েছে দুটি। বিপরীতে স্বাগতিকররা শট নিয়েছে ৯টি, লক্ষ্যে ছিল ৩টি। পাঁচ ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ‘এফ’ গ্রুপের শীর্ষে মাইকেল ক্যারিকের দল। ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ভিয়ারিয়াল।

ম্যাচের প্রথমার্ধ খুব একটা সুযোগ তৈরি করতে পারেনি রোনালদোরা। শুরুর দিকে তিনি ছিলেন ছায়া হয়েই। তবে ভিলারিয়ালের হয়ে মোই গোমেজ, ইয়ারেমি পিনোরা দুর্দান্ত খেললেও খুব বেশি গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেননি। প্রথমার্ধ গোলশূন্য ড্র থাকায় দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটাও হয় ফ্যাকাসে।

তবে দ্বিতীয়ার্ধে দারুণ কিছু আক্রমণে যায় ভিয়ারিয়াল। রেড ডেভিলসদের বাঁ-দিক থেকে বেশ কয়েকবার প্রতিরক্ষা ভেদ করে বক্সে ঢুকে পড়ে ডানজুম। কিন্তু ফিনিশিংটা ভালো করতে না পাওয়ায় অধরাই থাকতে হয় গোল পাওয়ায়। অবশ্য ৬০ মিনিটে ম্য়ানুয়েল ট্রিগেইপরোসের শট দুর্দান্তভাবে ডেভিড ডে হেয়া রুখে দেন। না হলে সেসময়ই পিছিয়ে যেত ম্যান ইউ। অবশ্য শেষ ২০ মিনিটে প্রতিআক্রমণে যায় সফরকারীরা।

ভিলারিয়াল নিজের প্রত্যাশা কমিয়ে স্লো খেলা শুরু করলেই রেড ডেভিলসরা নিজেদের ঝাঁঝ বাড়ায়। প্রায় ম্যাচের ঘন্টাখানেক পর স্প্যানিশ দলটির ভুল ভ্রান্তি শুরু হয়। ভিলারিয়াল গোলরক্ষক রুলির ভুল পাসেই প্রথমে এগিয়ে যায় ম্যানইউ।

সতীর্থ এতিয়েনে কাপুর উদ্দেশ্যে দুর্বল পাস দেন রুলি। ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে ঠিকানায় বল পাঠান পর্তুগিজ তারকা। ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতাটিতে চলতি আসরে পাঁচ ম্যাচে ৬টি গোল করলেন রোনালদো।

৭৮ মিনিটে রোনালদোর গোলের পর ৯০ মিনিটে বদলি নামা ব্রুনো ফার্নান্দেজ ও মার্কাস রাশফোর্ডের সঙ্গে মিলে রোনালদো এক ভাল পাস দেন স্যানচো। গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন তিনি।

গ্রুপের অন্য ম্যাচে আটালান্টার বিপক্ষে ৩-৩ গোলে ড্র করে ইয়ং বয়েজ। তাতে টেবিলের ম্যান ইউর পর চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট করবে কোন দল, তা আরও জটিল হলো। পরবর্তী ধাপে যেতে পরের ম্যাচে ভিলারিয়ালের বিপক্ষে জয় তুলতেই হবে ইতালিয়ান ক্লাবটির। অন্যদিকে সফরকারী ভিয়ারিয়াল ম্যাচটি স্রেফ ড্র করলেই পরের রাউন্ড নিশ্চিত করবে। গ্রুপ পর্বের পরের ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড নিয়ম রক্ষার লড়াইয়ে ঘরের মাঠে ইয়ং বয়েজের বিপক্ষে নামবে।

(ঢাকাটাইমস/২৪নভেম্বর/এইচএন)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :