‘আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী দেশের উন্নয়নে প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখছে’

কালিয়াকৈরে (গাজীপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:৪৭

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম বলেছেন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী দেশের সর্ববৃহৎ শৃঙ্খলা ও জনসম্পৃক্ত বাহিনী। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি পর্যন্ত প্রতিটি ক্ষেত্রে এ বাহিনীর সদস্যরা সবসময়ই কর্মদক্ষতা ও সফলতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে। তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত বিস্তৃত এ বাহিনী দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখছে।

বুধবার সকালে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুরে অবস্থিত বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি একাডেমিতে সাধারণ আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণ (পুরুষ) দ্বিতীয় ধাপের সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মিজানুর রহমান শামীম বলেন, বর্তমানে সারা বাংলাদেশের ৪৯২টি উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) নিরাপত্তায় চার হাজার ২৩ জন সশস্ত্র অঙ্গীভূত আনসার নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা বিমান বন্দর, সমুদ্র বন্দর, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, কর্ণফুলী টানেল, জাতীয় সংসদ ভবন, মেট্রোরেল, পদ্মা বহুমুখী সেতু, হোটেল, মোটেল, হাসপাতাল, ইপিজেডসহ গুরুত্বপূর্ণ চার হাজার ২২২টি প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তায় ৪৬ হাজার ৭০ জন অঙ্গীভূত আনসার সদস্য নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব পালন করছেন।

মহাপরিচালক বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ স্থানীয় সরকারের সব স্তরের নির্বাচন, বিভিন্ন ধর্মীয় উৎসব, ঈদ, দুর্গাপূজা, বিশ্ব ইজতেমা, বর্ষবরণ, বাণিজ্য মেলা, বই মেলা, রেল স্টেশন ও কোভিড ১৯ বিশেষায়িত হাসপাতালের নিরাপত্তা ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালনে এ বাহিনী বিশেষ অবদান রাখছে।

এর আগে সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে ইয়ান আলী প্যারেড গ্রাউন্ডে বিএইডামের প্রবেশের মধ্য দিয়ে শুরু হয় কুচকাওয়াজ। একে একে মাঠে প্রবেশ করে প্যারেড কন্টিনজেন্ট, প্যারেড অ্যাডপ্লুটেন্ট, কোম্পানি কমান্ডার, প্যারেড কমান্ডার, ব্যাটালিয়ন কমান্ডার ও পতাকাবাহী কন্টিনজেন্ট।

একাডেমির পরিচালক (উন্নয়ন) বিশেষ অতিথির পর অশ্বারোহী দলের নিরাপত্তা বেষ্টনিতে মাঠের পশ্চিম প্রান্ত দিয়ে আগমন করেন প্রধান অতিথি। লাল গালিচায় মোড়ানো সুসজ্জিত খোলা সবুজ জিপে একাডেমির পরিচালক (উন্নয়ন) ও প্যারেড কমান্ডারকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিটি কন্টিনজেন্ট পরিদর্শন করেন তিনি।

পরে প্যারেড ছয় সারিতে মার্চ পাস্ট করে প্রধান অতিথিকে অভিবাদন জানায়। এরপর শপথ গ্রহণ শেষে ৮৯৩ জন প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী তিনজনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি।

এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাহিনীর অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খন্দকার ফরিদ হাসান, বিজিবিএম, পিবিজিএম (বার), এনডিসি।

অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন উপ-মহাপরিচালক (প্রশাসন) কর্ণেল মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, পিএসসি, উপ-মহাপরিচালক (অপারেশন) মো. সামছুল আলম, বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি একাডেমির পরিচালক (উন্নয়ন) মো. ফখরুল আলমসহ বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

(ঢাকাটাইমস/৮ডিসেম্বর/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :