আড়াইহাজারে তিনজনকে পিটিয়ে হত্যায় দুই মামলা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১২:১৩

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ডাকাত সন্দেহে লেগুনা মালিক ও দুই চালকসহ তিনজনকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ডাকাতি ও হত্যার পৃথক দুটি মামলা দায়ের হয়েছে। এর মধ্যে ডাকাতির মামলা করেছেন রূপগঞ্জ উপজেলার ফকির ফ্যাশন ফ্যাক্টরির বাস ড্রাইভার মো. হানিফা ও হত্যা মামলা করেছেন আড়াইহাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহমান ঢালী।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান বলেন, ‘গণপিটুনিতে তিনজন নিহতের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। একটি করেছেন শ্রমিকদের বহনকারী বাসচালক ও অন্যটি পুলিশ।

তিনি জানান, শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে আড়াইহাজার থানায় মামলা দুটি রুজু হয়। এর মধ্যে পুলিশের হত্যা মামলায় ২০০ থেকে ২৫০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। আর বাস চলকের ডাকাতি মামলায় নিহত তিনজনের নাম উল্লেখ ও ১৪ থেকে ১৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।’

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় উপজেলার ইলমদী বেনজীর বাগ এলাকায় ডাকাত সন্দেহে তিন যুবককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নিহতের স্বজনরা জানান, তিনজনের কেউ ডাকাত না। তারা লেগুনা মালিক ও চালক। তাদের পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে।

ডাকাতি মামলায় বাদী বাস চালক মো. হানিফা উল্লেখ করেন, ‘গত ১৩ জানুয়ারি ভোর ৫টায় রূপগঞ্জের ফকির ফ্যাশনের শ্রমিকদের আনতে প্রতিষ্ঠানের বাসে আড়াইহাজার উপজেলার সিংহদী ও আপরদী এলাকা থেকে কয়েকজন শ্রমিক নিয়ে ইলমদী মোড়ে পৌঁছা মাত্র অজ্ঞাত ১৪ থেকে ১৫ জন ডাকাত সদস্য ২টি লেগুনা গাড়িতে শ্রমিকবাহী বাসের সামনে এসে গতিরোধ করে। দুটি লেগুনা থেকে পাঁচ থেকে সাতজন ডাকাত সদস্য বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র হাতে নিয়ে আমাদের বাসে উঠে আমাকেসহ বাসে থাকা নয়জন শ্রমিককে জিম্মি করে। এসময় বাসের শ্রমিকদের কাছ থেকে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে বাস থেকে নেমে যায়। এসময় ইলুমদী মোড়ে বাসের জন্য অপেক্ষমান শ্রমিকেরা বাসের দিকে আসতে থাকে। তখন বাসের ভেতরে থাকা শ্রমিকরা ডাকাত বলে চিৎকার করলে ডাকাতরা পালানোর চেষ্টা করে। এসময় তিনজন ডাকাতকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে আমরা বাসে শ্রমিকদের নিয়ে ফকির ফ্যাশন প্রতিষ্ঠানে চলে যাই। পরে জানতে পারি স্থানীয় জনতা আটক তিনজকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে।’

এদিকে, ডাকাতির অভিযোগ আমলে নিয়ে পুলিশ মামলা গ্রহণ করলেও তাদের হত্যা করায় পুলিশের পক্ষ থেকে অজ্ঞাত আসামি করে পৃথক মামলাটি দায়ের করা হয়।

ওই হত্যার ঘটনায় শুক্রবার সকালে সোনারগাঁও উপজেলার এশিয়ান হাইওয়ে সড়কে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী।

ঢাকাটাইমস/১৫জানুয়ারি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :