‘জিয়া এরশাদ ও খালেদার সময়ে উন্নয়ন হয়নি, ভাষণ হয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারি ২০২২, ২১:৩৪
ফাইল ছবি

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া অন্য কোনো সরকারপ্রধান বীরমুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে কিছু করেননি। শেখ হাসিনা বীরমুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা, ভ্রমণ এবং ভাতা বৃদ্ধির পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনের ব্যবস্থা করেছেন। মুক্তিযোদ্ধাদের শেখ হাসিনা ছাড়া কেউ সম্মান করেনি; অথচ এটা তাদের প্রাপ্য ছিল। রাষ্ট্রের দায়িত্ব ছিল তাদের সম্মান করার।

শুক্রবার দিনাজপুরের বিরলে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ এবং তাদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে পৌর মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর, আওয়ামী লীগ নেতা রমাকান্ত রায় উপস্থিত ছিলেন।

খালিদ মাহমুদ বলেন, ‘অনেকে মুক্তিযোদ্ধা সেজে ক্ষমতা দখল করেছে; মানুষকে শোষণ এবং শাসন করেছে। প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের শুধু সম্মান করেননি; তিনি মানবতার মা হয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মমর্যাদার সহযোগী হিসেবে তাদেরকে বাড়ি করে দিচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধাদের দায়িত্বটা প্রধানমন্ত্রী নিজের কাঁধে নিয়েছেন, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সোনার বাংলায় পরিণত হচ্ছে। আমাদের খাদ্য, বস্ত্র, চিকিৎসা, শিক্ষা ও বাসস্থানের অভাব নেই। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্ব সব ক্ষেত্রে আমাদের সক্ষমতা বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতা ও সাহসী নেতৃত্বের জন্য এসব সম্ভব হয়েছে।’

খালিদ বলেন, ‘জিয়াউর রহমান, এরশাদ এবং খালেদা জিয়ার সময় উন্নয়ন হয়নি, শুধু ভাষণ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষের উন্নয়নে, সামগ্রিক জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে কাজ করছেন।’

এর আগে প্রতিমন্ত্রী বিরলের ফারাক্কাবাদ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন। কেন্দ্রটি নির্মাণে এক কোটি ৪৫ লা খ টাকা ব্যয় হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বিরলের পাইকপাড়ায় পুরিয়া, বরইল ও ছোট বৈদ্যনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন।

(ঢাকাটাইমস/২১জানুয়ারি/টিএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :