বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাক নতুন তামাশা: কাদের

অনলাইন ডেস্ক
| আপডেট : ১৪ মে ২০২২, ১৪:৫৯ | প্রকাশিত : ১৪ মে ২০২২, ১৪:৪৮

বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাক জনগণের সঙ্গে নতুন তামাশা বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শনিবার মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে অংশ নিয়ে এ মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। রাজধানীতে নিজের বাসভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সম্মেলনে বক্তব্য দেন তিনি।

যারা নিজ দলের চেয়ারপারসনের মুক্তির জন্য দেখার মতো একটা মিছিল পর্যন্ত করতে পারেনি, তাদের মুখে সরকার পতনের আন্দোলনের কথা মানায় না উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আগে নিজ দলে ঐক্য ফিরেয়ে আনুন। তারপর অন্য কথা বলুন। নিজের ঘরের মধ্যেই ঐক্য নেই বিএনপির।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিরোধীদলের আজকে এগিয়ে যাওয়ার পথে কালো ছায়া সংকটে পড়েছে শেখ হাসিনার অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার কারণে। আন্দোলন ও নির্বাচনে ব্যর্থতার দায়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বঙ্গোপসাগরে ঝাঁপ দিয়ে ভাসতে ভাসতে এখন শ্রীলঙ্কা দ্বীপে পৌঁছেছে।

কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশে এসেছিলেন বলেই বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন অর্জনে বিশ্বের বিস্ময়। প্রতিটি সংকট ও দুর্যোগে দক্ষতার সঙ্গে নেতৃত্ব দিয়ে শেখ হাসিনা সফলতা অর্জন করেছেন। বাংলাদেশ ঋণগ্রস্ত নয়, বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কাকেও ঋণ দিয়েছে।

বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাবে, বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের মানুষ খুশি থাকলে মির্জা ফখরুলদের মন খারাপ হয়ে যায়। তারা জনগণের ভালো দেখতে পারে না।জনগণ ও দেশের ভালো কিছু দেখলেই তাদের গা জ্বালা করে।

আওয়ামী লীগ থেকে দূষিত রক্ত বের করে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালন করার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের দলের শীর্ষ নেতাদের উদ্দেশে বলেন, ভালো লোকদের দলে টানুন আর খারাপদের দল থেকে বের করে দিন। ত্যাগীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ। তাদেরকে দলের মধ্যে জায়গা করে দিন।

আওয়ামী লীগ করে কোটি কোটি টাকা পাচার করেছে যারা তাদের চিহ্নিত করে দল থেকে বের করে দিন, সম্প্রতি ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তার বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগে কেউ অপকর্ম করলে রেহাই পায় না, শাস্তি পেতে হয়। বিএনপির আমলে এমন একটাও নজির নেই,যে তারা শাস্তি দিয়েছে।

এদেশের মধ্যে একমাত্র আওয়ামী লীগই দুর্নীতিতে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। যারাই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত হয়েছে তাদের সবাইকে শাস্তির ব্যবস্থা আওতায় আনা হয়েছে, দলের লোকদেরকেও ছাড় দেওয়া হয়নি।

ঐতিহাসিক নোমানি ময়দানে মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আ ফ ম আবদুল ফাত্তাহর সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরো ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, আবদুর রহমান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক।

(ঢাকাটাইমস/১৪মে/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :