রাজশাহীতে বাথরুমের দরজা ভেঙে শিক্ষককে মারধর, তদন্ত কমিটি

রাজশাহী ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ আগস্ট ২০২২, ২২:২৯

রাজশাহীর বাঘায় শিক্ষককে তাড়া করে বাথরুমের দরজা ভেঙে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে চড় মারার জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। ৯ আগস্ট উপজেলার ছাতারী উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বুধবার তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আখতার গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. রোকুজ্জামানকে প্রধান করে গঠিত কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষককে লিখিতভাবে অভিযোগ করা হলেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এতে শিক্ষার্থীরা উত্তেজিত হয়ে শিক্ষককে দেখামাত্র তাড়া করে। এক পর্যায়ে শিক্ষক বাথরুমে গিয়ে আশ্রয় নেন। পরে বাথরুমের দরজা ভেঙে শিক্ষককে বের করে মারধর করা হয়।

মারধরের শিকার সহকারী গ্রন্থাগারিক জাহিদুল ইসলাম জুয়েল বলেন, আমি ক্লাসে সুন্দরভাবে একটি বিষয় উপস্থাপন করছিলাম। কিন্তু এক শিক্ষার্থীর ক্লাসে মনোযোগ ছিল না। আমি তাকে কয়েকবার সতর্ক করার পরেও কোনও ফল পাইনি। পরে তাকে একটি চড় মেরেছিলাম। এটি গত ৯ আগস্টের ঘটনা। এরপর শিক্ষার্থীরা গত ১৬ আগস্ট প্রধান শিক্ষককে অভিযোগ দেয়। প্রধান শিক্ষক ব্যবস্থা নেওয়ার আগেই কিছু উচ্ছৃঙ্খল শিক্ষার্থীর নেতৃত্বে আমার ওপর হামলা চালানো হয়।

বাঘা উপজেলার ছাতরী উচ্চ বিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষক নারগিস খাতুন বলেন, বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীরা উত্তপ্ত হয়ে উঠছিল। আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বাঘা থানায় বিষয়টি জানালে তারা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ইউএনও শারমিন আখতার বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। প্রতিবেদন হাতে পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৮আগস্ট/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :