২০০ পাইলট তিমির মৃত্যু অস্ট্রেলিয়ার সৈকতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৩৬

অস্ট্রেলিয়ার তাসমানিয়ার পশ্চিম উপকূলের দূরবর্তী সমুদ্র সৈকতে আজ বৃহস্পতিবার পাইলট প্রজাতির তিমির একটি ঝাঁক উঠে আসে। তাদের মধ্যে ২০০ পাইলট তিমির মৃত্যু হয়েছে। ৩৫টি তিমিকে বাঁচানো গিয়েছে। খবর বিবিসি, এএফপি।

তিমিগুলোকে বাঁচাতে ওই এলাকায় উদ্ধারকর্মীদের পাঠানো হয়। মাত্র একদিন আগেই তাসমানিয়ার উত্তরাঞ্চলেও একসঙ্গে অনেক তিমি আটকা পড়ে। মঙ্গলবার কিং আইল্যান্ডে ১৪টি তিমি আটকা পড়েছে বলে খবর পাওয়া যায়।

এদিকে বুধবার ২৩০টি তিমি আটকা পড়েছে জানার সঙ্গে সঙ্গেই তাদের উদ্ধারে এগিয়ে আসেন উদ্ধারকর্মীরা। কিন্তু এই কাজ খুবই জটিল। বিশেষ করে ওই সৈকত বেশ দূরে হওয়ায় উদ্ধার কাজ ব্যহত হয়েছে।

প্রথম দিকে মনে করা হয়েছিল আটকা পড়া অর্ধেক তিমিকে হয়তো বাঁচানো যাবে। কিন্তু মাত্র ৩৫টি তিমি এখন বেঁচে আছে বলে জানা গেছে। আটকে পড়া তিমিগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে কম্বল দিয়ে ঢেকে প্রচুর পানি ঢালতে থাকেন স্থানীয় লোকজন।

উল্লেখ্য, দুই বছর আগে অস্ট্রেলিয়ার ম্যাককুয়েরি বন্দরের কাছের সৈকতে সবচেয়ে বেশি তিমি উঠে আসে। সংখ্যাটা ছিল প্রায় ৫০০। এর মধ্যে ৩০০টি তিমিই মারা যায়। ২০১৭-য় প্রতিবেশী দেশ নিউজিল্যান্ডের সাউথ আইল্যান্ডের সৈকতে উঠে এসেছিল প্রায় ৭০০টি তিমি। সেবারও বিপুল পরিবারে জলের এই স্তন্যপায়ী প্রাণীটির মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছিল। দু’বছর পর ফের তিমি মৃত্যুর ঘটনা ঘটল অস্ট্রেলিয়ার সৈকতে।

পাইলট তিমি অত্যন্ত সামাজিক স্তন্যপায়ী প্রাণী এবং দলগত ভাবে থাকার কারণে বেশ সুপরিচিত। একটি বড় দলে তারা ভ্রমণ করতে পছন্দ করে।

কেন দল বেঁধে সমুদ্র সৈকতে উঠে আসে তিমি? সমুদ্র বিজ্ঞানীদের দাবি, অনেক সময় দলছুট সঙ্গীদের অনুসরণ করতে গিয়ে এমনটা ঘটিয়ে ফেলে তিমির ঝাঁক। সাধারণত অসুস্থ, আহত বা বয়স্ক তিমিগুলি সাঁতরে সৈকতে উঠে আসে। তাদের অনুসরণ করতে গিয়েই সৈকতে উঠে আসে বিশাল তিমির ঝাঁক। তবে এর সঠিক কারণ এখনও স্পষ্ট করে জানাতে পারেননি সমুদ্র এবং প্রাণী বিজ্ঞানীরা। প্রসঙ্গত, পাইলট প্রজাতির তিমি ২০ ফুট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। সমুদ্রে এগুলি দল বেঁধেই থাকতে পছন্দ করে। একটা সময় নির্বিচারে তিমি শিকার করা হত। বর্তমানে অবশ্য পরিবেশের ভারসাম্যের কথা মাথায় রেখে যথেচ্ছ তিমি শিকারকে বেআইনি বলে ঘোষণা করেছে বহু দেশ।

প্রাণী বিজ্ঞানীদের দাবি, বছরের বিভিন্ন সময় ২০ থেকে ৩০টি তিমির অস্ট্রেলিয়া বা নিউজিল্যান্ডের সৈকতে উঠে আসার ঘটনা নতুন নয়। তবে গত কয়েক বছরে ঝাঁকের পর ঝাঁক তিমি উঠে আসছে সৈকতে। এদের একটা বড় অংশকেই আর বাঁচানো যাচ্ছে না। এই অবস্থায় চলতে থাকলে ভবিষ্যতে তিমি অবলুপ্ত হয়ে যাবার সম্ভাবনা বেশি।

(ঢাকাটাইমস/২২ সেপ্টেম্বর/আরজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

তেলের দাম নির্ধারণ করা ছিল পশ্চিমা সরকারদের বিপজ্জনক প্রচেষ্টা: মস্কো

করোনার নতুন ধরন আসতে পারে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা

বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধি ২ শতাংশের নিচে নেমে আসার ব্যাপারে আইএমএফের সতর্কতা

বিয়ের আগে যৌন সম্পর্ক নিষিদ্ধ হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ায়

সাত শিক্ষার্থীকে মৃত্যুদণ্ড দিল মিয়ানমারের জান্তা সরকার

রাশিয়ার তেলের দামের সীমা নির্ধারণে ঐকমত্যে জি সেভেন-ইউরোপীয় ইউনিয়ন

যুদ্ধ বন্ধে বাইডেনকে পাল্টা শর্ত পুতিনের

কাবুলে পাকিস্তান দূতাবাসে হামলা, নিরাপত্তারক্ষী আহত

মুম্বাইয়ের রাস্তায় হেনস্থার শিকার দক্ষিণ কোরিয়ার নারী ভ্লগার

ব্রাজিলে হঠাৎ বন্যায় পানিবন্দি হাজার হাজার মানুষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :