রাজধানীসহ পাঁচ জেলায় সড়কে প্রাণ গেল আটজনের

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:২৯ | প্রকাশিত : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৫৮

রাজধানী ঢাকাসহ পাঁচ জেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। জেলাগুলো হলো- বগুড়া, কক্সবাজার, জয়পুরহাট, ফরিদপুর ও চুয়াডাঙ্গা। এসব দুর্ঘটনায় ছয়জন নিহত এবং আহত হয়েছেন ২২ জন। গতকাল এসব সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

রাজধানীর হাজারীবাগে নিহত হন ফিরোজা বেগম (৫০), বগুড়ার শেরপুরে শাহনাজ খাতুন (৫৫), কক্সবাজারের টেকনাফে ফাতেমা (২০) এবং তার শিশু ছেলে আসওয়াদ, জয়পুরহাটের নুরুল ইসলাম (৬৫), তার নাতি একই গ্রামের মাহমুদুল হোসেনের ছেলে শাকিব হোসেন (৫), ফরিদপুরে নজরুল ইসলাম (৩৮), চুয়াডাঙ্গায় মাদ্রাসাছাত্র মাহাম্মদ আলী ওরফে নীরব (৮)।

নিজস্ব প্রতিবেদক ও জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর হাজারীবাগ মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ফিরোজা বেগম (৫০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। তিনি একজন গৃহকর্মী ছিলেন। হাজারীবাগ বউবাজার বালুর মাঠের সামনের রাস্তায় গতকাল দুপুর আড়াইটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনার পর ওই নারীর স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। বিকাল পৌনে ৪টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ফিরোজার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর কটিয়াদি উপজেলায়। তার স্বামীর নাম দুখু মিয়া। হাজারীবাগ বউবাজার বালুর মাঠ এলাকায় স্বামী ও সন্তানের সঙ্গে বসবাস করতেন তিনি।

নিহতের ছেলে সুজন জানান, বাসার সামনেই বেরিবাধের নিচের একটি শুরু সড়কে তার মা রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি মোটরসাইকেল তাকে ধাক্কা দেয়।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

বগুড়া:

বগুড়ার শেরপুরে অসুস্থ মাকে দেখতে যাওয়ার পথে স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে কাভার্ডভ্যানের চাপায় শাহনাজ খাতুন (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল সকাল ১০টায় মির্জাপুর বাজার এলাকার ইসলামী ব্যাংকের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

শাহনাজ খাতুন সুঘাট ইউনিয়নের জয়গা সরকার পাড়া এলাকার আনোয়ার সরকারের স্ত্রী।

আনোয়ার হোসেন জানান, স্ত্রীকে নিয়ে আমার অসুস্থ শাশুড়িকে দেখতে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। মির্জাপুর বাজার এলাকায় রাস্তা পাড়াপার হওয়ার সময় পেছন থেকে ঢাকাগামী অজ্ঞাতনামা একটি কাভার্ডভ্যান পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেল থেকে শাহনাজ ছিটকে পড়ে কাভার্ডভ্যানের চাকার নিচে গিয়ে পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে তার স্ত্রী নিহত হন।

শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ ক্যাম্পের উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাবুল হোসেন জানান, আইনি প্রক্রিয়া শেষে লাশটি পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের টেকনাফ সড়কে মিনিট্রাক-সিএনজি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। এসময় আরও দুজন গুরুতর আহত হয়েছে। গতকাল দুপুর ১২টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ফাতেমা (২০) ও তার শিশু ছেলে আসওয়াদ। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, টেকনাফ হাইওয়ে সড়কের লম্বাবিলে মিনিট্রাকের (ডাম্পার) সঙ্গে সিএনজির সংঘর্ষ হয়ে দুজন আহত ও একজন নিহত হয়েছেন। পুলিশে জানালে পুলিশ এসে গাড়ি দুটি জব্দ করেন এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় দ্রুত আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠান। তবে হাসপাতালে যাওয়ার পথে আরও একজন মারা যান। এতে নিহতের সংখ্যা দুজনে দাঁড়ায়।

হোয়াইক্যং হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মনিরুল ইসলামের সরকারি মোবাইল নাম্বারে কয়েকবার ফোন দিলেও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। ওই ফাঁড়িতে দায়িত্বরত একজন পুলিশের এসআই গাড়ি দুটি জব্দ করেছে এবং দুজন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন।

ফরিদপুর:

ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুবের গঙ্গাবর্দী এলাকায় বিদ্যুতের খুঁটি বাসের ভেতরে ঢুকে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায়েএকজন নিহত ও দুটি বাসের কমপক্ষে ২০ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নিহতের নাম নজরুল ইসলাম(৩৮)। নিহত মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ের কুমার ভোগ এলাকার রাজ্জাকের ছেলে। আহতরা হলেন- আশরাফ(৭০), সাজু আহম্মেদ ( ২২), তপন(৪৫)।

গতকাল দুপুর ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হাইওয়ে রাস্তার পাশ থেকে বিদ্যুতের একটি খুঁটি ক্রেন দিয়ে উঠানোর সময় চলন্ত বাসে ঢুকে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। আহতদের ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাস্তার পাশে ফেলে রাখা বিদ্যুতের খুঁটি উঠানোর সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা তালুকদার পরিবহন বাসটি দ্রুতগতিতে এলে খুঁটি বাসের ভেতরে ঢুকে যায়। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা মেহেরপুর থেকে ঢাকাগামী জেআর পরিবহনে ধাক্কা লেগে রাস্তার পাশে খাদের কিনারায় পড়ে গাছের সাথে ধাক্কা খায়।

করিমপুর হাইওয়ে থানার ওসি শংকর কুমার জানান, এই দুর্ঘটনায় বিশাল আকৃতির একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি বাসটির সামনে দিয়ে ঢুকে পেছন পর্যন্ত চলে যায়। এতে বাসে থাকা অন্তত ১৫ যাত্রী আহত হন। অপর বাসটিরও ৫ যাত্রী আহত হন। আহতদের মধ্যে চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহতদের মধ্যে দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

জয়পুরহাট

জয়পুরহাটের কালাইয়ে আলুবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে ব্যাটারি চালিত অটোভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নানা-নাতি নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে কালাই উপজেলার পাঁচশিরা-মোলামগাড়ী সড়কের মহিরোম এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কালাই উপজেলার পুনট ইউনিয়নের শিকটা উত্তরপাড়া গ্রামের নানা মৃত অছির উদ্দিনের ছেলে নুরুল ইসলাম (৬৫) এবং নাতি একই গ্রামের মাহমুদুল হোসেনের ছেলে শাকিব হোসেন (৫)।

কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুদ্দীন এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, নিহতরা সন্ধ্যায় অটোভ্যানে করে মোলামগাড়ীহাট থেকে তাদের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে উপজেলার মহিরোম এলাকায় পৌঁছায়। এসময় কালাইয়ের দিক থেকে আসা আলুবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে অটোভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ভ্যানে থাকা যাত্রী নানা-নাতির মৃত্যু হয়।

তবে দুর্ঘটনার পর ট্রাক আটক করা হলেও চালক ও তার সহকারী ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। চালককে আটক করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গায় ইজিবাইকের ধাক্কায় মাদ্রাসাছাত্র মোহাম্মদ আলী ওরফে নীরব (৮) নিহত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধা ৭টার দিকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় নীরব।

নিহত নীরব ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার শ্যামকুর ইউনিয়নের ডাকাতিয়া গ্রামের মাঝেরপাড়ার সাদেক আলীর ছেলে ও চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার গোপালপুর দারুল উলুম কওমি মাদ্রাসার নূরানী ২য় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

এর আগে শুক্রবার দুপুরে মাদ্রাসার সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় ইজিবাইকের ধাক্কায় আহত হলে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিহত নীরবের চাচাতো ভাই একই মাদ্রাসার ছাত্র মেহেদী হাসান জানায়, এলাকার একটি বাড়ি থেকে দুপুরের খাবার খেয়ে মাদ্রাসায় ফিরছিল নীরব। এসময় রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি ইজিবাইক তাকে ধাক্কা দেয়। আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় নীরব।

সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. উৎপল বিশ্বাস বলেন, ইজিবাইকের ধাক্কায় নীরবের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত লাগে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। সন্ধ্যা ৭টার দিকে মারা যায় সে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নীরবের লাশ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত হতে পারে।

(ঢাকাটাইমস/২৩সেপ্টেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

জাতীয় এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :