সিলেটে আ.লীগের ছয় নেতার মাথায় শাস্তির খড়গ!

মো. মুন্না মিয়া, সিলেট
 | প্রকাশিত : ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১৮:০৮

সিলেটে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বনাথ পৌরসভা ও গোয়াইনঘাট উপজেলার চার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৬ প্রার্থী বিদ্রোহী হয়েছেন। তাদের ব্যাপারে কঠোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে যাচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগ। মনোনয়ন প্রত্যাহার না করলে সাময়িক ও আজীবন বহিষ্কারের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দলটির সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খাঁন।

জানা গেছে, প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বনাথ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ১১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তার মধ্যে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ। তাকে চ্যালেঞ্জ করে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি প্রবাসী আকদ্দুছ আলী। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক দুবারের উপজেলা চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন। যেহেতু তিনি দলীয় মনোনয়ন চাননি; সেহেতু তিনি আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী নয়।

এদিকে, গোয়াইনঘাট উপজেলার ৪ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ২৬ প্রার্থী। তার মধ্যে ক্ষমতাসীন দলের ৫ বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। তারা হলেন- পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন পরিষদে বর্তমান চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফুর রহমান লেবু, মো. শামীম আল মামুন, মধ্য জাফলং ইউনিয়নে লোকমান হোসেন, পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নে মামুন পারভেজ ও গোয়াইনঘাট সদর ইউনিয়নে গোলাম রব্বানী সুমন।

শুক্রবার বিকালে বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয় নিয়ে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খাঁনের সঙ্গে ঢাকাটাইমসের কথা হয়।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করছি। কেউ যদি জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীর বিপক্ষে গিয়ে কাজ করে আমরা তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেব। উন্নয়ন, অগ্রযাত্রা এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে আমি ভোটারদের আহ্বান জানাচ্ছি।’

আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিজয়ী করতে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে দলীয় ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

নাসির উদ্দিন আরও বলেন, ‘দলের বিদ্রোহী যারা হয়েছেন তারা যদি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করেন আমরা তাদের সাময়িক বহিষ্কার করব। কেন্দ্র থেকে তাদের আজীবন বহিষ্কার করা হবে।’

তফসিল অনুযায়ী ১০ অক্টোবর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই, ১৭ অক্টোবর প্রার্থিতা প্রত্যাহার, প্রতীক বরাদ্দ ১৮ অক্টোবর আর ২ নভেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

(ঢাকাটাইমস/০৭অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :