ফারদিন খুনে বুশরাকে জড়ানো কি আবেগ আর সন্দেহের বশেই?

সিরাজুম সালেকীন, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৫৩

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশ হত্যায় প্রথমে সন্দেহভাজন, পরে হত্যা মামলার আসামি হয়ে গ্রেপ্তার হন আয়াতুল্লাহ বুশরা। পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে বর্তমানে কারাগারে আছেন তিনি। তবে তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ফারদিন হত্যায় এখন পর্যন্ত বুশরার সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি। এজন্য জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুনরায় রিমান্ড আবেদন করা হয়নি।

এদিকে সন্দেহের তালিকা থেকে বুশরাকে বাদ দিতে চাচ্ছেন না ফারদিনের বাবা কাজী নুরউদ্দিন রানা। তিনি বলছেন, 'যত কিছুই বলা হোক-সন্দেহের তালিকা থেকে বুশরাকে বাদ দেওয়া যায় না।'

আর বুশরার বাবা মঞ্জুরুল ইসলামের দাবি, তার মেয়ে এই হত্যায় জড়িত না।

ফারদিন নিখোঁজ এবং মরদেহ উদ্ধারের প্রায় দুই সপ্তাহ হলেও এখনো কোনো রহস্য বের করতে পারেনি পুলিশ। তবে আরেক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী র‌্যাব বলছে, নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জ চনপাড়ার মাদককারবারি রায়হান গ্যাং ফারদিনকে হত্যা করতে পারে। তবে কী কারণে এই হত্যা সেই রহস্য উদঘাটনে কাজ চলছে।

ফারদিনের বাবা কাজী নুরউদ্দিন রানা ঢাকা টাইমসকে বলেন, 'বুশরা যদি সত্যিকারের অর্থেই ভালো বন্ধু কিংবা বান্ধবী হতো তাহলে পরীক্ষার আগের রাতে কোনোভাবেই আমার ছেলের সঙ্গে সময় কাটাতে পারে না। তারা আধা ঘণ্টা কিংবা এক ঘণ্টার জন্য দেখা করতে পারত।'

রাজধানীর রামপুরা থেকে নিখোঁজের তিন দিন পর গত ৭ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টার দিকে নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদী থেকে বুয়েটের ছাত্র ফারদিনের মরদেহ উদ্ধার করে নৌ পুলিশ। তিনি বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। মরদেহ উদ্ধারের পরেরদিন ফারদিনের বান্ধবী বুশরা ও অজ্ঞাত কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে রামপুরা থানায় মামলা করেন। এরপরই বুশরা গ্রেপ্তার হন। বুশরা পড়েন ঢাকার বেসরকারি ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটিতে। তিনি ফারদিনের বান্ধবী ছিলেন বলে দাবি করা হচ্ছে। তবে দুইবছরের কললিস্ট যাচাই করে বুশরার সঙ্গে ফারদিনের প্রেমের সম্পর্কের কোনো কিছু পাওয়া যায়নি।

এদিকে পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে বুশরাকে কারাগারে রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। ডিবির তদন্ত কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ফারদিন হত্যার সঙ্গে এখনো বুশরার কোনো সম্পৃক্ততা মেলেনি। ডিবি হেফাজতে বুশরাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ফারদিন খুনের বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন ডিবি প্রধান হারুন-অর রশীদ। তিনি বলেন, 'বুশরার বক্তব্য হচ্ছে, তারা যতক্ষণ একসঙ্গে ছিলেন, ততক্ষণ ফারদিন স্বাভাবিকই ছিলেন। তারা রেস্টুরেন্টে খেয়ে যার যার বিল দিয়েছেন। বুশরাকে রামপুরা নামিয়ে দিয়ে ফারদিন চলে যায়।'

গতকাল বৃহস্পতিবার ডিবি পুলিশের পক্ষ থেকে একটি ভিডিও দেখাতে ফারদিনের বাবা নুরউদ্দিন রানাকে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়। ওই ভিডিওতে ৩ নভেম্বর দিনগত রাত সোয়া দুইটার দিকে ফারদিনকে যাত্রাবাড়ীতে লেগুনায় উঠতে দেখা গেছে। আর যে লেগুনায় ফারদিনকে উঠতে দেখা গেছে, তার চালক ও হেলপারকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে বলেও ডিবি পুলিশ জানিয়েছে।

ভিডিওটি দেখার পর নুরউদ্দিন বলেন, 'এটা যে ফারদিন তা নিশ্চিত হতে পারছি না। বিচারাধীন বিষয় যুক্তিতর্কের জায়গাতে নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত কেউ স্টাবলিস্ট করতে পারে না। আমার ছেলে রাত দুটায় মুভ করবে এটা হতেই পারে না। হতে পারে কেউ তাকে ড্রিংক করিয়ে সেখানে নিয়ে গেছে।'

যা বলছেন ফারদিনের বাবা

নুরউদ্দিন বলেন, 'অতীতে এমন রেকর্ড নেই যে ছেলে পরিবারের সঙ্গে পরামর্শ না করে বা না জানিয়ে কিছু করেছে। নিখোঁজ হওয়ার আগ পর্যন্ত সে তার মাকে যা জানিয়েছে, সে অনুযায়ী চলতে দেখেছি। কিন্তু এখন ঠিক বুঝতে পারছি না সে আসলে কেন যাত্রাবাড়ী গিয়েছিল।

‘হত্যার বিষয়ে ডিবি পুলিশ ও র‌্যাব জোর দিয়ে তদন্ত করছে। ফারদিনকে পরিকল্পিত হত্যায় জড়িত কারা সেটা বের করতে সময় লাগবে আমি জানি’—যোগ করেন তিনি।

বিদেশ যাওয়া নিয়ে ফারদিন কোনো অবসাদে ভুগছিলেন কি না জানতে চাইলে নুরউদ্দিন রানা বলেন,... সে রকম কিছু নয়। আমার ছেলে ছোটবেলা থেকেই গল্প-উপন্যাস পড়ে বড় হয়েছে। বিদেশ যাওয়া হলো না বলে ভেঙে পড়ার মতো সে নয়। ওর চরিত্রের মধ্যে সেরকম কিছু নেই।'

এদিকে বুশরার বাবা মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন গণমাধ্যমের বরাত ও তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন ফারদিন হত্যায় আমার মেয়ে জড়িত না। এবিষয় বুশরা জড়িত এমন কোনো ক্লু পাওয়া যায়নি। আশা করছি, ভবিষ্যতেও পাওয়া যাবে না।'

(ঢাকাটাইমস/১৮নভেম্বর/এসএস/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অপরাধ ও দুর্নীতি এর সর্বশেষ

আ.লীগ নেতা টিপু-প্রীতি হত্যা: আসামি বিডি বাবুকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

রাজধানীতে তরুণীর কান ছিঁড়ে স্বর্ণের দুল ছিনতাই

বান্দরবানে জঙ্গিদের সঙ্গে গোলাগুলিতে র‌্যাবের আট সদস্য আহত, পাঁচজন আটক

ছিনতাই করা মোবাইলের আইএমআই বদলে বিক্রি হতো মার্কেটে, গ্রেপ্তার ৩

আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির ৬ কোটি টাকা হাতিয়ে ফ্ল্যাটের ব্যবসা, দোকান

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও হত্যা: যাবজ্জীবন সাজা নিয়ে ১৭ বছর পলাতক, অবশেষে গ্রেপ্তার

রাজধানীতে ২০ ছিনতাইকারী ও কিশোর অপরাধী আটক

থানচিতে জঙ্গি ও পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের সঙ্গে র‍্যাবের গোলাগুলি

বিদ্যালয় পরিদর্শকের স্বাক্ষর জালকারী চক্রের সদস্য গ্রেপ্তার

ময়মনসিংহে মোস্তফা হত্যা: দুই যুগ পর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ঢাকায় গ্রেপ্তার

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :