আদালতে গিয়েও লাভ হবে না খালেদা জিয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ অক্টোবর ২০২৩, ২২:১০

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা নিতে যাওয়া ‘আইনি বাধায়’ আটকে গেছে। তার বিদেশ যেতে চাওয়ার আবেদনে আইন মন্ত্রণালয় ‘না’ বলেছে। এই মুহুর্তে বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাওয়ার পথ খোলা নেই বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তবে খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে সরকার তাকে যে জামিন দিয়েছে, তা বহাল থাকবে বলেও জানিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

এদিকে খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার আবেদন নাকচ রাজনৈতিক বলে মন্তব্য করেছেন তার আইনজীবী বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের মহাসচিব ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

এক ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে আবারও প্রমাণিত হয়েছে দেশে আইনের শাসন নেই। এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে ভয়ঙ্কর তামাশা করা হয়েছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারায় স্পষ্টভাবে বলা আছে, সরকার চাইলেই নির্বাহী আদেশে তাকে মুক্তি দিতে পারে।

তিনি বলেন, আজ অনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী রাজনৈতিকভাবে প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার স্থায়ী মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ চেয়ে ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার গত ২৫ সেপ্টেম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন। আবেদনটি মতামতের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। গতকাল আইন মন্ত্রণালয় ওই আবেদন নাকচ করেছে। জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারবেন না।

খালেদা জিয়ার আবেদন নাকচের পর রবিবার দুপুরে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, খালেদা জিয়ার আবেদন আইন মন্ত্রণালয় না করে দেওয়ায় আইন অনুযায়ী এই মুহুর্তে তিনি আদালতে যেতে পারবেন না। প্রথমে তাকে কারাগারে যেতে হবে। তারপর তিনি সাজা বাতিল চেয়ে আদালতে আবেদন করতে পারবেন। তিনি বাসায় থেকে বা দেশের হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারবেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘ফৌজদারী কার্যবিধির ৪০১ ধারায় কোনো দরখাস্ত একবার নিষ্পত্তি করা হয়. সেই নিষ্পত্তিকৃত দরখাস্ত পুনর্বিবেচনার কোনো অবকাশ আইনে থাকে না। আমরা সেই ফৌজদারী কার্যবিধির ৪০১ ধারা, উপধারা ১, উপধারা ২, উপধারা ৩, উপধারা ৪, উপধারা ৫, এবং সর্বশেষ উপধারা ৬ ব্যাখ্যা করে আমাদের মতামত পাঠিয়ে দিয়েছি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

৪০১ ধারার ক্ষমতা যখন সরকার প্রয়োগ করেন তখন সেটাকে আদালতে চ্যালেঞ্জ করা যায়না বলেও জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেভাবে বলেছেন- এখন যে আদেশ আছে সেটা যদি বাতিল করা হয়। বাতিল করে যদি আবার কারাগারে নেওয়া হয় তখন তিনি আদালতে যেতে পারবেন। এই অবস্থায় তিনি আদালতে যেতে পারবেন না।’

এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালও কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে প্রচলিত আইনে যা নির্দেশনা দেওয়া আছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও তা দেশবাসীকে ইতোমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন।’

বিএনপিকে ইঙ্গিত দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘চিকিৎসার জন্য তারা যত আন্দোলন সংগ্রামই করুক আইনের বাইরে গিয়ে খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার সুযোগ নেই।’

আইনমন্ত্রীর ব্যাখ্যা: আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আইনগতভাবে অনুমতি দেওয়ার কোনো সুযোগ সরকারের হাতে নেই। সেই মতামতই আইন মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া হয়েছে।

আইনমন্ত্রী আরও বলেন, ফৌজদারি কার্যবিধি ৪০১-এর ১ উপধারার ক্ষমতাবলে যে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে, সেটা অতীত এবং ক্লোজড (শেষ) হয়ে গেছে । অর্থাৎ এই আবেদনের প্রেক্ষাপটে নতুন করে কোনো সিদ্ধান্তের সুযোগ থাকল না।

প্রসঙ্গত, শারীরিকভাবে অসুস্থ খালেদা জিয়াকে গত ৯ আগস্ট রাতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর থেকে তিনি গত ৫২ দিন ধরে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

হার্টের সমস্যা, লিভারসিরোসিস ছাড়াও নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন ৭৮ বছর বয়সী খালেদা জিয়া। এছাড়াও আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, দাঁত ও চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতা রয়েছে তার। লিভারের পুরনো জটিলতা বাড়ায় অন্য রোগের প্রতিরোধ ক্ষমতাও দিনে দিনে কমে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তার হৃদযন্ত্রে তিনটি ব্লকও ধরা পড়ে। এর একটিতে রিং পরানো হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার সাজা হয়। সেদিন থেকে তিনি কারাবন্দি হন। ২০২০ সালের মার্চে দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার খালেদা জিয়ার দণ্ড ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে। তখন থেকে তিনি গুলশানের বাড়িতে থাকেন। প্রতি ছয় মাস পরপর সরকার তার মুক্তির মেয়াদ ৮ দফা বাড়িয়েছে।

(ঢাকা টাইমস/০১অক্টোবর/আরআর/আরকেএইচ/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

সংগ্রামের মাধ্যমেই গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে: সালাম

এত বড় লুণ্ঠনকারী বেহায়া সরকার দেশের ইতিহাসে এর আগে আসেনি: দুদু

ঢাকা মহানগরসহ বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ ইউনিট ভেঙে দেওয়ায় নেতাকর্মীদের বিস্ময় 

আওয়ামী সরকার দেশকে দেউলিয়া করতে বেপরোয়া

ছাত্রদলের ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ-পূর্ব-পশ্চিমের কমিটি বিলুপ্ত 

ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ বিএনপি এবং যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত

সরকারের দুঃশাসনে জনগণের ঈদ আনন্দ আজ ম্লান: সালাম

জনগণের কাছে সরকারের ন্যূনতম মূল্য নেই: আমিনুল হক

মহিলা দলের নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার দিলেন বিএনপি নেতা বকুল

হরিজনদের উচ্ছেদ করে ভাগ বাটোয়ারা করলে তা হবে ডাকাতি: জিএম কাদের

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :