বিএনপির মুখে ভোটাধিকারের কথা শুনলে হাসি পায়: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ১৫ জুন ২০২৪, ১৪:৩৪ | প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০২৪, ১০:৫৩

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান দেশের মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। বলেন, বিএনপির মুখে ভোটাধিকারের কথা শুনলে হাসি পায়।

বাংলাদেশ কৃষক লীগ আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। গণভবনে শনিবার সকাল ১০টায় এ সভার আয়োজন করা হয়।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানই প্রথম মানুষের ভোটাধিকার হরণ করেন মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে এ দেশের ভোটের সমস্ত অধিকার কেড়ে নিয়েছিল। তার সেই হ্যাঁ-না ভোট দিয়ে যাত্রা শুরু; অবৈধ ক্ষমতাকে বৈধ করার জন্য।

শেখ হাসিনা বলেন, একাধারে সেনাপ্রধান, তারপর আবার নিজেকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা দিয়ে ক্ষমতায় এসে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনি প্রহসন। ক্ষমতার মসনদে বসেই দল গঠন। ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে যে দলটি গঠন করে, তাকে আবার জিতিয়ে আনার জন্য ভোট চুরির একটা প্রক্রিয়া এ দেশে শুরু করেছিল।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, জিয়াউর রহমানের পরে তারই পদাঙ্ক অনুসরণ করে এরশাদ ক্ষমতায় এসে জনগণের ভোটের অধিকার নিয়ে ছিনিমিনি খেলে। এ দেশের কৃষক-শ্রমিকরা সব সময় অবহেলিতই থেকে যায়। এরপর আসলো খালেদা জিয়া। সেও ক্ষমতায় আসার পর দেখা গেল, শুধু জনগণের ভোট চুরি করাই না, দেশের কৃষকের ভাগ্য নিয়েও ছিনিমিনি খেলে; সার পাওয়া যাচ্ছে না, কৃষক আন্দোলন করেছে। আন্দোলন করার অপরাধে ১৮ জন কৃষককে গুলি করে হত্যা করেছিল।

কৃষিজমি রক্ষায় গুরুত্বারোপ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কৃষিজমি কেউ নষ্ট করতে পারবে না। কৃষিজমি নষ্ট করে শিল্পায়ন করা যাবে না। বিশেষ করে তিন ফসলি জমিতে কোনো শিল্প কল-কারখানা করা যাবে না। আমাদের যেন কারও কাছে হাত পেতে চলতে না হয়। এজন্য কৃষি উৎপাদন বাড়াতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, কৃষি নিয়ে আমাদের আগে যারা ক্ষমতায় ছিল তারা এ বিষয়ে নজর দেয়নি। যে কারণে আমাদের অনেক উর্বর ভূমি নষ্ট হয়েছে। আমরা এ ব্যাপারে যথেষ্ট কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছি।

সেচ ব্যবস্থায় সোলার প্যানেলের গুরুত্ব তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতি বছর ৮১ লাখ লিটার ডিজেল সেচ কাজে খরচ হয়। এই ডিজেল যাতে সেচে ব্যবহার করতে না হয় সে জন্য সোলার প্যানেল স্থাপন করতে হবে। সেচটাকে পুরোপুরি সোলারে নিয়ে যেতে চাচ্ছি।

সেচকাজে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়ানোর পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমরা ভূ-উপরিস্থ পানি পরিশুদ্ধ করে ব্যবহার উপযোগী করায় বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছি। সেচকাজেও সেভাবে পদক্ষেপ নিয়েছি। সারা দেশে নদী-নালা, খাল-বিল, হাওর-বাঁওড় এবং বিশেষ করে ছোট ছোট জলাধার সংস্কারের কাজ এরই মধ্যে শুরু হয়েছে। বর্ষাকালে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের পদক্ষেপ আমাদের নিতে হবে, তাহলে আমাদের ভূগর্ভস্থ পানির ওপর নির্ভরতা কমে যাবে।

বিএনপির ক্ষমতাকালের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির টাকা মেরে খেতো বিএনপি।

(ঢাকাটাইমস/১৫জুন/ডিএম/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

জাতীয় এর সর্বশেষ

আশঙ্কা ছিল এ ধরনের একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী

বিচারবিভাগীয় তদন্ত কমিশনের বৈঠক, তথ্য চেয়ে গণবিজ্ঞপ্তি দেওয়া হবে

‘সাংবাদিক কেন গুলিতে প্রাণ হারালো, বিচার না হওয়া পর্যন্ত রাজপথ ছাড়ব না’

নিহত ৩ পুলিশ সদস্যের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা আইজিপির

সংঘর্ষ-সহিংসতায় ১১৩১ পুলিশ সদস্য আহত, আইসিইউতে ৪ জন

ফেসবুকসহ সামাজিক মাধ্যম বন্ধই থাকছে

মোবাইল ইন্টারনেট পুরোদমে চালু হতে সোমবার পর্যন্ত অপেক্ষা

সরকার এত সহজ জিনিস না ‘ধাক্কা মেরে’ ফেলে দেবেন: বিপ্লব কুমার

স্বস্তি না ফেরা পর্যন্ত কারফিউ চলবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে শিগগির, শিক্ষার্থীরা মামলায় জড়ালে দেখবে সরকার’

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :